রেমিট্যান্স আনার অনুমতি পেল মোবাইল ব্যাংকিং

  বাংলাদেশের কথা ডেস্ক
  প্রকাশিতঃ সন্ধ্যা ০৭:২১, মঙ্গলবার, ২৯ নভেম্বর, ২০২২, ১৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৯

বিকাশ, রকেট ও উপায়ের মতো মোবাইলে আর্থিক সেবাদানকারী (এমএফএস) প্রতিষ্ঠানের মাধ্যমে সরাসরি প্রবাসী আয় বা রেমিট্যান্স আনার সুযোগ দিয়েছে কেন্দ্রীয় ব্যাংক। ২৯ নভেম্বর  বাংলাদেশ ব্যাংকের বৈদেশিক মুদ্রা ও নীতি বিভাগের জারিকৃত এক সার্কুলারের মাধ্যমে এ অনুমতি দেওয়া হয়েছে।

 

 

সার্কুলারে বলা হয়েছে, এতোদিন বিদেশি কোনও ব্যাংকের মাধ্যমে রেমিট্যান্স এনে ওই অর্থ গ্রাহকের মনোনীত ব্যক্তির কাছে পৌঁছে দিত। এখন এমএফএস প্রতিষ্ঠানগুলো সরাসরি প্রবাসী আয় পাঠাতে পারবে।

এ জন্য লাইসেন্স প্রাপ্ত মোবাইল সার্ভিস প্রোভাইডাররা বিদেশস্থ অনলাইন পেমেন্ট গেটওয়ে সার্ভিস প্রোভাইডার, ব্যাংক, ডিজিটাল ওয়ালেট, কার্ড স্কিম ও অ্যাগ্রিগেটর পেমেন্ট সার্ভিস প্রোভাইডার প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে চুক্তিবদ্ধ হতে হবে। সহযোগী প্রতিষ্ঠানের হিসাবে বৈদেশিক মুদ্রা জমা হবে, যা প্রবাসীর মোবাইল ফাইনান্সিয়াল হিসাবে টাকায় জমা হবে। 

অন্যদিকে, মোবাইল ফাইনান্সিংয়ের মাধ্যমে অর্থ পাঠাতে বিদেশে কর্মরত প্রবাসীদের যথাযথ ই-কেওয়াইসি পরিপালন করে দেশের মোবাইল ব্যাংকিং বা এমএফএসে হিসাব খুলতে হবে। এ টাকা লেনদেনে দেশীয় ব্যাংক মোবাইল সার্ভিস প্রোভাইডারদের সেটেলমেন্ট অ্যাকাউন্ট সুবিধা দেবে। ব্যাংকের বিদেশি নস্ট্রো হিসাবে অর্থ জমার পর ওই অর্থের সমপরিমাণ টাকা সেটেলমেন্ট হিসাবে জমা হবে বলেও জানায় বাংলাদেশ ব্যাংক।

মোবাইল ফাইনান্সিংয়ে এ ধরনের অর্থ লেনদেনের সুবিধা এতোদিন দেশের মধ্যে সিমাবদ্ধ থাকায় বিদেশে থেকে দ্রুত অর্থ পাঠাতে অবৈধ পন্থার আশ্রয় নিতেন অনেক প্রবাসী। এর ফলে মানি লন্ডারিং হতো। হুন্ডির ঘটনাও ঘটতো। তবে বাংলাদেশ ব্যাংকের নতুন সার্কুলারের ফলে নিঃসন্দেহে হুন্ডির দৌরাত্ম কমে গিয়ে রেমিট্যান্স বৃদ্ধি পাবে। সেই সাথে দেশে বিদ্যমান ডলারে সংকট কাটবে বলেও মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা।

Share This Article