তিন দেশের কারণেই বিশ্ববাজারে ভোজ্য তেলের সংকট !

  বাংলাদেশের কথা ডেস্ক
  প্রকাশিতঃ বিকাল ০৩:০৪, রবিবার, ৮ মে, ২০২২, ২৫ বৈশাখ ১৪২৯

ভোজ্য তেলের মূল্য বৃদ্ধির কারণে সারা বিশ্বের মানুষই আজ চরম সংকটের মুখে। আসুন এক ঝলকে দেখে নিই তেলের দাম বৃদ্ধির কারণগুলো।

সয়াবিন তেল : 
বিশ্বে সবচেয়ে বেশি ভোজ্য তেল উৎপাদনকারী দেশ আর্জেন্টিনা। গত বছর প্রচণ্ড খরার কারণে বিশাল পরিমান ফসল নষ্ট হয়েছে। ফলে তাদের তেল উৎপাদন কমে গেছে। এ কারণে আর্জেন্টিনা থেকে তেল আমদানীকারক দেশগুলোতে তেলের সংকট দেখা দিয়েছে।

সানফ্লাওয়ার তেল : 
বিশ্বে যতো সানফ্লাওয়ার তেল উৎপাদন হয় তার ৭৫ শতাংশই উৎপাদন করে রাশিয়া ও ইউক্রেন। এই দুই দেশ যুদ্ধে জড়িয়ে পড়লে ইউক্রেন থেকে ভোজ্য তেল রপ্তানী পুরোপুরি বন্ধ হয়ে যায়। অন্যদিকে নিষেধাজ্ঞার কারণে রাশিয়া থেকে এক ছটাক তেলও রপ্তানি হয়নি।

যুদ্ধের কারণে এই দুই দেশ থেকে ৮৫ লক্ষ মেট্রিক টন তেল বিশ্ববাজারে আসা পুরোপুরি বন্ধ হয়ে গেছে। ফলে অনেকটাই তেলশূন্য হয়ে গেছে বিশ্ববাজার। আর এতে সবচেয়ে বিপদে আছে জার্মানী ও যুক্তরাজ্য। কারন এই দুই দেশেই সানফ্লাওয়ার সবচেয়ে বেশি ব্যবহৃত হয়।

পামওয়েল : 
বিশ্বে যতো পামঅয়েল রপ্তানী হয় তার ৫৩ শতাংশই সরবরাহ করে ইন্দোনেশিয়া। যুদ্ধের সুযোগে ইন্দোনেশিয়া প্রতি লিটার পামওয়েল ১ ডলারের বদলে দেড় ডলার করে বিক্রি করছে। এই খবরের পর ইন্দোনেশিয়ার জনগণ তেল মজুদ করতে শুরু করে এবং সংকট আরো ঘনিভূত হয়। এমন পরিস্থিতিতে পামওয়েল রপ্তানি বন্ধ করে দেয় ইন্দোনেশিয়া।

মূলত বিশ্বের ভোজ্য তেলের খনি হিসেবে পরিচিত এই তিন দেশের কারণেই বিশ্বে তেলের সংকট দেখা দিয়েছে।

Share This Article