শীর্ষ সন্ত্রাসী লেদু গ্রেফতার

  বাংলাদেশের কথা ডেস্ক
  প্রকাশিতঃ বিকাল ০৫:১৩, শনিবার, ১৮ ডিসেম্বর, ২০২১, ৩ পৌষ ১৪২৮

রাজধানীর দারুস সালাম থানা এলাকা থেকে শীর্ষ সন্ত্রাসী মো. মনোয়ার হাসান জীবন ওরফে লেদু হাসানকে বিদেশি পিস্তলসহ গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাব।

১৭ ডিসেম্বর অভিযান চালিয়ে র‌্যাব-৪ এর একটি দল তাকে গ্রেপ্তার করে।

জানা গেছে, লেদু হাসানের বিরুদ্ধে সন্ত্রাস, চাঁদাবাজি ও হত্যার অভিযোগে ২৮টি মামলা রয়েছে।

র‍্যাব-৪ এর অপারেশন অফিসার মো.সাজেদুল ইসলাম জানান, লেদু হাসানকে গ্রেপ্তারের সময় তার কাছ থেকে একটি বিদেশি পিস্তল, ম্যাগাজিন ও এক রাউন্ড গুলি উদ্ধার করা হয়। তার বাড়ি লক্ষ্মীপুর জেলায়। ১৯৯০ সালে তিনি ঢাকায় আসেন। ২০১০ সালে বহুল আলোচিত ওহিউদুজ্জামান হত্যা মামলায় মোহাম্মদপুর থানা পুলিশ তাকে গ্রেপ্তার করে। ওই মামলায় ২০১২ সাল কারাভোগ করেন। পরে জেল হতে মুক্তি পেয়ে আরও বেপরোয় হয়ে ওঠেন। সন্ত্রাস, চাঁদাবাজিসহ নানা ধরনের অপকর্মের সঙ্গে জড়িয়ে পড়েন। তার বিরুদ্ধে মোহাম্মদপুর, আদাবর থানাসহ বিভিন্ন থানায় মামলা রয়েছে।

লেদু হাসানকে জিজ্ঞাসাবাদের বরাত দিয়ে র‍্যাব জানায়, রাজধানীর মোহাম্মদপুর ও আদাবর থানা এলাকায় দীর্ঘদিন ধরে চাদাবাজি, সন্ত্রাসী কার্যকলাপ ও মাদক ব্যবসা চালিয়ে আসছিলেন তিনি। সাধারণ মানুষের সম্পত্তি ও জমি দখল, চাঁদাবাজি, হুমকি, জুয়াসহ নানা অপরাধে যুক্ত হন। মোহাম্মদপুর এলাকায় কোনো ভবন নির্মাণ কাজ শুরু হলে তাকে নির্দিষ্ট পরিমাণ চাঁদা দিতে হতো। নাহলে নিজস্ব ক্যাডার বাহিনী দিয়ে কাজ বন্ধ করে দিতেন।

র‍্যাব আরও জানায়, লেদু হাসান ২০১৭ সালে রাজনৈতিক প্রতিহিংসার জেরে এস আর পলাশকে হত্যা করেন। আদাবর থানায় তার বিরুদ্ধে একটি হত্যা মামলা চলমান। একটি অস্ত্র মামলায় তার ১০ বছরের কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে। মোহাম্মদপুর বেড়িবাধ এলাকায় একটি গাড়িতে আগুন দিয়ে দুই নারীকে  পুড়িয়ে হত্যা মামলার আসামি তিনি। ওই মামলা এখনও তদন্তাধীন। তার বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে।

Share This Article