‘বঙ্গবন্ধু রাজনৈতিক নেতৃত্বের এক অনুকরণীয় দৃষ্টান্ত’

  বাংলাদেশের কথা ডেস্ক
  প্রকাশিতঃ রাত ০৮:৪৪, বৃহস্পতিবার, ৯ ডিসেম্বর, ২০২১, ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৮

শিল্পমন্ত্রী নূরুল মজিদ মাহমুদ হুমায়ূন বলেন, বঙ্গবন্ধু এমন এক ব্যক্তি, যিনি রাষ্ট্রীয় ও গণমানুষের স্বার্থে নিজের জীবনের গুরুত্বপূর্ণ সময়গুলোকে ব্যয় করেছিলেন। রাজনৈতিক উদ্দেশ্যে তিনি ছুটে গেছেন দেশের এই প্রান্ত থেকে ওই প্রান্তে। গণতন্ত্রের পক্ষে জনমত গড়ে তুলতে অনাহারে, অর্ধাহারে তৃণমূল নেতৃবৃন্দের সঙ্গে ছিলেন।

শিল্পমন্ত্রী নূরুল মজিদ মাহমুদ হুমায়ূন বলেন, বঙ্গবন্ধু এমন এক ব্যক্তি, যিনি রাষ্ট্রীয় ও গণমানুষের স্বার্থে নিজের জীবনের গুরুত্বপূর্ণ সময়গুলোকে ব্যয় করেছিলেন। রাজনৈতিক উদ্দেশ্যে তিনি ছুটে গেছেন দেশের এই প্রান্ত থেকে ওই প্রান্তে। গণতন্ত্রের পক্ষে জনমত গড়ে তুলতে অনাহারে, অর্ধাহারে তৃণমূল নেতৃবৃন্দের সঙ্গে ছিলেন। নেতাকর্মীদের মধ্যকার সুসম্পর্ক স্থাপন এবং তথ্যের নিবিড় প্রচারণায় নিবেদিতপ্রাণ ছিলেন শেখ মুজিবুর রহমান। তারুণ্যের দীপ্তি ছড়িয়ে রাজনৈতিক নেতৃত্বে এক অনুকরণীয় দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছিলেন।

বৃহস্পতিবার বাংলাদেশ শিল্প কারিগরি সহায়তা কেন্দ্রের (বিটাক) উদ্যোগে মুজিব জন্মশতবর্ষ ও স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উপলক্ষে আলোচনা সভা, ক্রীড়া প্রতিযোগিতা এবং সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে শিল্পমন্ত্রী এসব কথা বলেন।

শিল্পমন্ত্রী বলেন, বঙ্গবন্ধু মানে এক আপসহীন নেতার নেতৃত্ব। তিনি কখনোই পিছু হটার মতো ব্যক্তি ছিলেন না। বীরদর্পে শুধু সামনের দিকেই ছুটেছেন। এনে দিয়েছেন একটি সার্বভৌম সোনার বাংলাদেশ। বঙ্গবন্ধুর বর্তমান অবস্থান তাঁকে কেউ উপহার দেয়নি, বরং তিনি তাঁর যোগ্যতায় বাঙালি জাতির পিতার আসনটি অর্জন করে নিয়েছেন। বঙ্গবন্ধু’র সব ভাবনার কেন্দ্রবিন্দু ছিল বাংলা, বাঙালি এবং বাংলাদেশের মানুষের মুক্তি।

Share This Article