গ্রেফতার আতঙ্কে স্ত্রীসহ ৩ সন্তানকে হত্যার পর যুবকের আত্মহত্যা

  বাংলাদেশের কথা ডেস্ক
  প্রকাশিতঃ সন্ধ্যা ০৬:৫৩, বৃহস্পতিবার, ৯ ডিসেম্বর, ২০২১, ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৮

অনলাইন ডেস্ক: স্ত্রীর জন্য ভুয়া সনদ সংগ্রহের পর ধরা পড়ে গ্রেপ্তার আতঙ্কে জার্মানির এক ব্যক্তি তার স্ত্রী ও তিন সন্তানকে হত্যার পর আত্মহত্যা করেছেন। গ্রেফতার আতঙ্কে তিনি ওই হত্যাযজ্ঞ চালিয়েছেন বলে মঙ্গলবার এক জার্মান প্রসিকিউটর জানিয়েছেন। খবর রয়টার্সের।

বার্লিনের দক্ষিণে কোয়েনিগস ওয়াস্টারহাউসেন এলাকায় গত শনিবার একটি বাড়িতে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় ওই পরিবারের পাঁচ সদস্যের মরদেহ উদ্ধার করে জার্মান পুলিশ।

নিহতদের মধ্যে প্রাপ্তবয়স্ক দুজনের বয়স ৪০ বছর এবং তিন শিশুর বয়স ৪, ৮ ও ১০ বছর। গুলিবিদ্ধ হয়ে তাদের সবার মৃত্যু হয়।

পুলিশের ধরণা, দম্পতির আশঙ্কা ছিল— এই জালিয়াতি ধরা পড়লে তাদের গ্রেফতার ও সন্তানদের কেড়ে নেওয়া হবে। এই আশঙ্কা থেকেই স্ত্রী ও তিন সন্তানকে হত্যার পর নিজেই আত্মহত্যা করেন ওই ব্যক্তি।

পুলিশের পাওয়া একটি সুইসাইড নোটে ওই ব্যক্তি উল্লেখ করেছেন— তিনি স্ত্রীর জন্য একটি ভুয়া করোনার টিকা নেওয়ার সনদ বানিয়েছেন। স্ত্রীর অফিসের লোকজন তা ধরে ফেলে। ফলে ওই দম্পতি গ্রেফতার ও সন্তান হারানোর আশঙ্কায় ছিলেন।

Share This Article