ফাঁসির রায় শুনে কাঁদলেন আবরারের বাবা

  বাংলাদেশের কথা ডেস্ক
  প্রকাশিতঃ দুপুর ০১:২৬, বুধবার, ৮ ডিসেম্বর, ২০২১, ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৮

বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) শিক্ষার্থী আবরার ফাহাদ হত্যা মামলার রায় শুনে কাঁদলেন বাবা বরকতুল্লাহ। 

রায় শোনার পর সন্তুষ্টি প্রকাশ করে তিনি বলেন, ‘আদালতে আইনের শাসন প্রতিষ্ঠা হয়েছে। উচ্চ আদালতে যেন এই রায় বহাল থাকে।’ এসময় এই রায় দ্রত কার্যকরের দাবি জানান তিনি।  

আজ বুধবার (৮ ডিসেম্বর) দুপুরে ঢাকার দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনাল-১ এর বিচারক আবু জাফর মো. কামরুজ্জামানের আদালত রায় ঘোষণা করা হয়। রায়ে ২০ জনের মৃত্যুদণ্ড ও পাঁচ জনকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত।

রায় ঘোষণা শেষে আসামিদের বিরুদ্ধে সাজা পরোয়ানা জারি করেছেন আদালত। আর পলাতক দণ্ডিত তিন আসামির বিরুদ্ধে জারি করা হয়েছে গ্রেফতারি পরোয়ানা।

এর আগে, সকালে ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগার থেকে ২২ আসামিকে আদালতে হাজির করা হয়। মামলার বাকি তিন আসামি পলাতক। এরপর বেলা পৌনে ১২টায় তাদের এজলাসে তোলা হয়। 

২০১৯ সালের ৬ অক্টোবর রাতে বুয়েটের শেরেবাংলা হলে আবরার ফাহাদকে পিটিয়ে হত্যা করা হয়। এ ঘটনায় ১৯ জনকে আসামি করে পরের দিন ৭ অক্টোবর চকবাজার থানায় একটি হত্যা মামলা করেন আবরার ফাহাদের বাবা বরকতুল্লাহ। ওই বছরের ১৩ নভেম্বর ২৫ জনকে অভিযুক্ত করে চার্জশিট দাখিল করেন মামলার তদন্ত কর্মকর্তা ঢাকা মহানগর (দক্ষিণ) গোয়েন্দা শাখার (ডিবি) পরিদর্শক ওয়াহেদুজ্জামান।

গত বছর ১৫ সেপ্টেম্বর ২৫ আসামির বিরুদ্ধে চার্জগঠন করে বিচার শুরু করেন আদালত। মামলায় ৬০ জন সাক্ষীর মধ্যে ৪৬ জনের সাক্ষ্যগ্রহণ করেন আদালত। গত ১৪ মার্চ এ মামলায় কারাগারে থাকা ২২ আসামি আত্মপক্ষ সমর্থনে নিজেদের নির্দোষ দাবি করেন। 

গত ২৮ নভেম্বর রায় ঘোষণার দিন ধার্য ছিল। রায় প্রস্তুত না হওয়ায় আদালত ৮ ডিসেম্বর দিন ধার্য করেন।

২০১৯ সালের ৬ অক্টোবর রাতে বুয়েটের শেরেবাংলা হলে আবরার ফাহাদকে পিটিয়ে হত্যা করে ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা। এ ঘটনায় পরের দিন ১৯ জনকে আসামি করে চকবাজার থানায় মামলা করেন আবরার ফাহাদের বাবা বরকত উল্লাহ। 

গত বছরের ১৫ সেপ্টেম্বর ২৫ আসামির বিরুদ্ধে চার্জ গঠন করে বিচার শুরু করেন আদালত। এ মামলায় ৬০ সাক্ষীর মধ্যে ৪৬ জনের সাক্ষ্য নেন আদালত। 

Share This Article

শান্তিতে নোবেল বিজয়ী কে এই আলেস বিলিয়াতস্কি?

আধুনিক প্রযুক্তিসম্পন্ন নিরবচ্ছিন্ন গ্রিড পেতে কাজ করছে সরকার : জ্বালানি প্রতিমন্ত্রী

রাসুলের আদর্শ অনুসরণেই মানবজাতির মুক্তি : ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের আমির

সেনা অভ্যুত্থান : ১০ লাখের বেশি মানুষ বাস্তুচ্যুত মিয়ানমারে

মুক্তিপণ দেওয়ার পরও বাঁচলেন না বাঁচতে পারলেন না সোহেল

বাংলাদেশ,শ্রীলংকা নাকি আমেরিকা: মাথাপিছু ঋণ কার বেশি

বিশ্ববাজারে কমেছে চিনি-মাংস-দুধের দাম, বেড়েছে ধান-গমের : জাতিসংঘ

বিদেশে পাঠানোর নামে কোটি কোটি টাকা হাতিয়েছে চক্রটি

দলীয় শৃঙ্খলা ভঙ্গ করায় বিএনপির ৪ নেতাকে নোটিশ

শিক্ষকের পা ছুঁয়ে শ্রদ্ধা জানালেন তথ্যমন্ত্রী


চতুর্থবারের মতো পদ্মা সেতু পাড়ি দিয়ে বাড়ি যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী

ছবি: সংগৃহীত

আচরণবিধি লঙ্ঘন না করতে আ.লীগকে বার্তা দেওয়া হয়েছে: ইসি আলমগীর

শেখ হাসিনা

র‌্যাবকে যুক্তরাষ্ট্র যেমন প্রশিক্ষণ দিয়েছে তারা সেভাবেই কাজ করেছে: প্রধানমন্ত্রী

ছবি: সংগৃহীত

পাম তেলের দাম কমল, বাড়ল চিনির

রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ

টুঙ্গিপাড়া যাচ্ছেন রাষ্ট্রপতি

শেখ হাসিনা

রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনে মিয়ানমারের সদিচ্ছার অভাব: প্রধানমন্ত্রী

শেখ হাসিনা

নেতৃত্ব নিয়ে নিজের অবস্থান জানালেন শেখ হাসিনা

অক্টোবরেই খুলছে টঙ্গী থেকে উত্তরা পর্যন্ত উড়ালসড়কের একাংশ

আন্ডার ফ্রিকোয়েন্সির জন্য বিদ্যুৎ বিপর্যয়: নসরুল হামিদ

বিশ্বে শান্তিরক্ষায় ১৪২ বাংলাদেশি সৈন্যের আত্মত্যাগ

মিনিকেট নামে কোনো চাল বিক্রি করা যাবে না: মন্ত্রিপরিষদ সচিব

শুক্রবার থেকে ২২ দিন ইলিশ ধরা বন্ধ