বিএনপির যে ২ নেতা নিলেন নারায়ণগঞ্জ সিটি নির্বাচনের মনোনয়নপত্র

  বাংলাদেশের কথা ডেস্ক
  প্রকাশিতঃ বিকাল ০৫:১৩, রবিবার, ৫ ডিসেম্বর, ২০২১, ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৮
বিএনপির দুই নেতা
বিএনপির দুই নেতা

নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি

নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন নির্বাচনে অংশ নিতে মেয়র পদে মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেছেন বিএনপির দুই নেতা। তারা হলেন- নারায়ণগঞ্জ মহানগর বিএনপির সহ-সভাপতি সাখাওয়াত হোসেন খান ও মহানগর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক এ টি এম কামাল।

 

রবিবার (৫ ডিসেম্বর) দুপুরে জেলা নির্বাচন কর্মকর্তার কার্যালয় থেকে তারা মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেন। বিএনপি দলীয়ভাবে নির্বাচনে অংশ না নেওয়ায় তারা স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে নির্বাচন করবেন বলে গণমাধ্যম কর্মীদের জানিয়েছেন।

দুপুর ১টার দিকে মেয়র পদে মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেন গতবারের সিটি করপোরেশন নির্বাচনে বিপুল ভোটে হেরে যাওয়া বিএনপি মনোনীত প্রার্থী সাখাওয়াত হোসেন খান। দুপুর পৌনে ২টার দিকে মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেন এ টি এম কামাল। দুজনের সঙ্গেই স্থানীয় বিএনপির কয়েকজন নেতা উপস্থিত ছিলেন।


মনোনয়ন সংগ্রহের পর সাখাওয়াত হোসেন খান বলেন, ‘আমি দলের সঙ্গে যোগাযোগ করেছি। যদি দল নির্বাচনে অংশ নেয় তবে আমি দলীয় প্রার্থী হবো। যদি দল অন্য কাউকে মনোনয়ন দেয় তবে মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করবো। কিন্তু দল যদি নির্বাচনে অংশ না নেয় তবে আমি নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের মানুষের স্বার্থে, গণতন্ত্র ফিরিয়ে আনার স্বার্থে নির্বাচনে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে অংশগ্রহণ করবো। এই নির্বাচন শতভাগ ইভিএমে হবে।’

তিনি বলেন, ‘বর্তমান নির্বাচন কমিশনের অধীনে এটি শেষ নির্বাচন। তাই বলবো, মানুষ যাতে কেন্দ্রে এসে ভোট দিতে পারে সে জন্য ব্যালটে নির্বাচনের দাবি জানাচ্ছি।’

মনোনয়নপত্র সংগ্রহকারী মহানগর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক এ টি এম কামাল বলেন, ‘এই সরকারের আমলে মানুষ তাদের ভোটাধিকার হারিয়েছে। রাতের বেলায় ভোট হয়েছে। এসবের প্রতিবাদেই আমার নির্বাচনে অংশ নেওয়া। দল হিসেবে বিএনপি যদি অংশ নেয়, তবে আমি দলীয় মনোনয়নপ্রত্যাশী। যদি দল নির্বাচনে অংশ না নেয় তবে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে নির্বাচন করবো। বিএনপি এই সরকারের অধীনে কোনও নির্বাচনে অংশ নেবে না বলে নীতিগত সিদ্ধান্তে অটল রয়ছে। তবে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে কেউ নির্বাচনে অংশ নিলে দলের এতে আপত্তি নেই।’

দুজনই জানিয়েছেন, দলের পক্ষ থেকে সবুজ সংকেত পেয়েই তারা নির্বাচনে অংশ নেওয়ার জন্য মনোনয়নপত্র নিয়েছেন। তবে শেষ পর্যন্ত দলের সিদ্ধান্তকেই তারা সম্মান জানাবেন।

এদিকে, তফসিল ঘোষণার সময় নির্বাচন কমিশন জানিয়েছে, নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন নির্বাচনে এবার প্রত্যেকটি কেন্দ্রে ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিনে ভোট করা হবে। গত ৩০ নভেম্বর এ নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করে ইসি।

তফসিল অনুযায়ী, আগামী ১৫ ডিসেম্বর মনোনয়নপত্র জমা দেওয়ার শেষ তারিখ। ভোটগ্রহণ হবে আগামী বছরের ১৬ জানুয়ারি।

এই নির্বাচনে ইতোমধ্যে সরকারি দল আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পেয়েছেন বর্তমান সিটি মেয়র ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভী। গত সিটি নির্বাচনে বিএনপি নেতা সাখাওয়াত হোসেন খানকে বিপুল ভোটের ব্যবধানে পরাজিত করেছিলেন নৌকার এ প্রার্থী।

Share This Article

শান্তিতে নোবেল বিজয়ী কে এই আলেস বিলিয়াতস্কি?

আধুনিক প্রযুক্তিসম্পন্ন নিরবচ্ছিন্ন গ্রিড পেতে কাজ করছে সরকার : জ্বালানি প্রতিমন্ত্রী

রাসুলের আদর্শ অনুসরণেই মানবজাতির মুক্তি : ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের আমির

সেনা অভ্যুত্থান : ১০ লাখের বেশি মানুষ বাস্তুচ্যুত মিয়ানমারে

মুক্তিপণ দেওয়ার পরও বাঁচলেন না বাঁচতে পারলেন না সোহেল

বাংলাদেশ,শ্রীলংকা নাকি আমেরিকা: মাথাপিছু ঋণ কার বেশি

বিশ্ববাজারে কমেছে চিনি-মাংস-দুধের দাম, বেড়েছে ধান-গমের : জাতিসংঘ

বিদেশে পাঠানোর নামে কোটি কোটি টাকা হাতিয়েছে চক্রটি

দলীয় শৃঙ্খলা ভঙ্গ করায় বিএনপির ৪ নেতাকে নোটিশ

শিক্ষকের পা ছুঁয়ে শ্রদ্ধা জানালেন তথ্যমন্ত্রী