‘খালেদার উন্নত চিকিৎসার জন্য যা প্রয়োজন তা করবে সরকার’

  বাংলাদেশের কথা ডেস্ক
  প্রকাশিতঃ সন্ধ্যা ০৭:০০, শুক্রবার, ৩ ডিসেম্বর, ২০২১, ১৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৮
খালেদা জিয়া
খালেদা জিয়া

নিজস্ব প্রতিবেদক:
আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এবং তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ বলেছেন, খালেদা জিয়া দেশে ভালো চিকিৎসা পাচ্ছেন। তার উন্নত চিকিৎসার জন্য যা যা প্রয়োজন সরকার তা করবে। রাজধানীর মিন্টো রোডের সরকারি বাসভবনে সাংবাদিকরা বিএনপির সাম্প্রতিক মশাল মিছিল নিয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাব দিতে গিয়ে তিনি একথা বলেন।

ড. হাছান মাহমুদ বলেন, ‘বিএনপি যখন মশাল মিছিল বের করে তখন জনগণ আতঙ্কিত হয় এই ভেবে যে, তারা আবার কীসে আগুন দেয়। কারণ বিএনপি বাসে, গাড়িতে, মানুষের সম্পত্তিতে আগুন দেওয়ার ও অগ্নিসন্ত্রাসের রাজনীতি করে।’

আসলে বিএনপি আন্দোলনের নানা ইস্যু খুঁজছে উল্লেখ করে ড. হাছান বলেন, তারা ভেবেছিল খালেদা জিয়ার ইস্যুতে তাদের কর্মীদের মাঠে নামাতে পারবে। কিন্তু বাস্তবে তা পারেনি। তারা খালেদা জিয়ার অসুস্থতাকে অতিরঞ্জিত করে যে ইস্যু তৈরির চেষ্টা করেছিল, সেটিও ঘটেনি। কারণ খালেদা জিয়া এখানে ভালো চিকিৎসা পাচ্ছেন এবং আরও উন্নত চিকিৎসার জন্য যা যা প্রয়োজন তার চিকিৎসকরা যেভাবে চায় সরকার তা করতে বদ্ধপরিকর।

তথ্যমন্ত্রী বলেন, ‘কিন্তু বিএনপি খালেদা জিয়ার সুস্থতা চায় না। তারা চায় তিনি হাসপাতালে থাকুন, তাহলে তাদের রাজনীতি করতে সুবিধা হবে।’

বিএনপি পরগাছার মতো আচরণ করছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, তারা কখনো ছাত্র আন্দোলন, কখনো গার্মেন্টস শ্রমিকদের ওপর ভর করে দেশে বিশৃঙ্খলার অপচেষ্টা করছে।

‘সরকার স্বাস্থ্য ব্যবস্থা ধ্বংস করছে’ বিএনপির এই মন্তব্যের প্রসঙ্গে অপর এক প্রশ্নের উত্তরে হাছান মাহমুদ বলেন, খালেদা জিয়ার হাঁটুর ব্যথা আর পেটের অসুখ দেশের স্বাস্থ্য ব্যবস্থার সূচক নয়। করোনা মহামারি নিয়ন্ত্রণে বহু উন্নত দেশের তুলনায় আমাদের সক্ষমতা এর অন্যতম সূচক।’

‘দেশের স্বাস্থ্য ব্যবস্থা যে কত ভালো করোনার মধ্যে তা প্রমাণিত হয়েছে’ উল্লেখ করে তথ্যমন্ত্রী বলেন, অনেক উন্নত দেশ যেভাবে সামাল দিতে পারেনি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ অনেক ভালোভাবে সামাল দিতে সক্ষম হয়েছে। আমাদের সীমাবদ্ধতা থাকা সত্ত্বেও চিকিৎসকরা ও স্বাস্থ্য ব্যবস্থা কত ভালো কাজ করছে এ থেকেই তা প্রমাণিত।

৭৬ বছর বয়সী সাবেক এ প্রধানমন্ত্রী বহু বছর ধরে আর্থ্রারাইটিস, ডায়াবেটিস, কিডনি, ফুসফুস, চোখের সমস্যাসহ নানা জটিলতায় ভুগছেন। অসুস্থতার জন্য টানা ২৬ দিন ওই হাসপাতালে চিকিৎসা শেষে ৭ নভেম্বর বাসায় ফেরেন তিনি। এর ছয়দিনের ব্যবধানে খালেদা জিয়াকে আবার ঢাকায় একটি বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তির পর ১৪ নভেম্বর দিবাগত রাত থেকে নিবিড় পর্যবেক্ষণে সিসিইউতে রাখা হয়েছে। তার পরিপাকতন্ত্রে ‘রক্তক্ষরণ হচ্ছে’ জানিয়ে দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, তাকে বিদেশে নেওয়া এখন অতি জরুরি।

এর আগে এপ্রিলে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হন খালেদা জিয়া। পরে করোনা পরবর্তী জটিলতায় ২৭ এপ্রিল হাসপাতালে ভর্তি হন। সে সময় এক মাসের বেশি সময় হাসপাতালের সিসিইউতে ভর্তি ছিলেন। শারীরিক অবস্থার উন্নতি হলে ১৯ জুন বাসায় ফেরেন। পরে করোনার টিকা নিতে তিনি দুই দফায় মহাখালীর শেখ রাসেল ন্যাশনাল গ্যাস্ট্রোলিভার ইনস্টিটিউট অ্যান্ড হাসপাতালে যান।

উল্লেখ্য, দুর্নীতির মামলায় দণ্ডিত হয়ে খালেদা জিয়া ২০০৮ সালের ৮ ফেব্রুয়ারি কারাগারে যান। করোনা মহামারির প্রেক্ষাপটে গত বছরের ২৫ মার্চ সরকার শর্তসাপেক্ষে তাকে সাময়িক মুক্তি দেয়। এ পর্যন্ত তিন দফায় খালেদা জিয়ার মুক্তির মেয়াদ বাড়ানো হয়। তবে বিএনপির নেতারা খালেদা জিয়ার শর্তসাপেক্ষে এ মুক্তিকে ‘গৃহবন্দি’ বলছেন। উন্নত চিকিৎসার জন্য পরিবারের পক্ষ থেকে বারবার আবেদন করা হলেও সরকার তা নাকচ করে দেয়। তাকে দেশে থেকেই চিকিৎসা নিতে হবে বলে শর্তও দেওয়া হয়েছে।

Share This Article

শান্তিতে নোবেল বিজয়ী কে এই আলেস বিলিয়াতস্কি?

আধুনিক প্রযুক্তিসম্পন্ন নিরবচ্ছিন্ন গ্রিড পেতে কাজ করছে সরকার : জ্বালানি প্রতিমন্ত্রী

রাসুলের আদর্শ অনুসরণেই মানবজাতির মুক্তি : ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের আমির

সেনা অভ্যুত্থান : ১০ লাখের বেশি মানুষ বাস্তুচ্যুত মিয়ানমারে

মুক্তিপণ দেওয়ার পরও বাঁচলেন না বাঁচতে পারলেন না সোহেল

বাংলাদেশ,শ্রীলংকা নাকি আমেরিকা: মাথাপিছু ঋণ কার বেশি

বিশ্ববাজারে কমেছে চিনি-মাংস-দুধের দাম, বেড়েছে ধান-গমের : জাতিসংঘ

বিদেশে পাঠানোর নামে কোটি কোটি টাকা হাতিয়েছে চক্রটি

দলীয় শৃঙ্খলা ভঙ্গ করায় বিএনপির ৪ নেতাকে নোটিশ

শিক্ষকের পা ছুঁয়ে শ্রদ্ধা জানালেন তথ্যমন্ত্রী


করোনায় আরও সাড়ে ১২শ মৃত্যু, শনাক্ত সোয়া ৫ লাখ

পদ্মা সেতু হয়ে টুঙ্গিপাড়া যাবেন রাষ্ট্রপতি

চতুর্থবারের মতো পদ্মা সেতু পাড়ি দিয়ে বাড়ি যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী

ছবি: সংগৃহীত

আকাশসীমা লঙ্ঘনকে ‘আক্রমণ’ হিসেবে দেখবে তাইওয়ান

ছবি: সংগৃহীত

আচরণবিধি লঙ্ঘন না করতে আ.লীগকে বার্তা দেওয়া হয়েছে: ইসি আলমগীর

শেখ হাসিনা

র‌্যাবকে যুক্তরাষ্ট্র যেমন প্রশিক্ষণ দিয়েছে তারা সেভাবেই কাজ করেছে: প্রধানমন্ত্রী

ছবি: সংগৃহীত

চার অঞ্চল নিয়ন্ত্রণে কোনো ছাড় দেবে না রাশিয়া

ছবি: সংগৃহীত

অনৈতিক কাজে কোনো শিক্ষার্থীকে বাধ্য করার সত্যতা পায়নি ইডেন কলেজ

ছবি: সংগৃহীত

পাম তেলের দাম কমল, বাড়ল চিনির

রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ

টুঙ্গিপাড়া যাচ্ছেন রাষ্ট্রপতি

ছবি: সংগৃহীত

ডে-কেয়ার সেন্টারে গুলিতে থাইল্যান্ডে ২২ শিশুসহ নিহত ৩৪

ছবি: সংগৃহীত

জাপোরিঝিয়ায় রাশিয়ার মিসাইল হামলা