গাজায় যুদ্ধবিরতি হলে লোহিত সাগরে হামলা বন্ধের ইঙ্গিত হুথিদেরও

  নিউজ ডেস্ক
  প্রকাশিতঃ দুপুর ০২:২১, বুধবার, ২৮ ফেব্রুয়ারি, ২০২৪, ১৫ ফাল্গুন ১৪৩০

 গাজায় ইসরায়েল ও হামাসের মধ্যে যুদ্ধবিরতি হলে লোহিত সাগরে তাদের হামলা বন্ধ হবে কিনা। উত্তরে তিনি বলেন, গাজার ওপর থেকে অবরোধ প্রত্যাহার করে সেখানে অবাধে মানবিক ত্রাণ পৌঁছাতে দিলে আমরা হামলা বন্ধ করার বিষয়টি বিবেচনা করব।

গাজ উপত্যকায় ইসরায়েলের ভয়াবহ গণহত্যার প্রতিবাদে গত নভেম্বর মাস থেকে ইসরায়েলি মালিকানাধীন ও ইসরাইলগামী বাণিজ্যিক জাহাজে হামলা করে আসছে ইয়েমেন। এরপর গতমাসে ইঙ্গো-মার্কিন বাহিনী হুথিদের অবস্থানে বিমান হামলা শুরু করার পর থেকে মার্কিন ও ব্রিটিশ জাহাজগুলোতেও হামলা শুরু করে সানা।


মঙ্গলবার আব্দুস-সালামের কাছে জানতে চাওয়া হয়, গাজায় ইসরায়েল ও হামাসের মধ্যে যুদ্ধবিরতি হলে লোহিত সাগরে তাদের হামলা বন্ধ হবে কিনা। উত্তরে তিনি বলেন, গাজার ওপর থেকে অবরোধ প্রত্যাহার করে সেখানে অবাধে মানবিক ত্রাণ পৌঁছাতে দিলে আমরা হামলা বন্ধ করার বিষয়টি বিবেচনা করব।

গত বছরের ৭ অক্টোবর থেকে গাজায় ইসরায়েলি গণহত্যা অভিযানে এখন পর্যন্ত প্রায় ৩০,০০০ ফিলিস্তিনি নিহত এবং ৭০,০০০ ফিলিস্তিনি আহত হয়েছেন।

ইয়েমেনে হুথি আনসারুল্লাহ আন্দোলন এ বিষয়টি স্পষ্ট করে দিয়েছে যে, গাজা গণহত্যায় ইসরায়েলের পক্ষ অবলম্বন করেনি- এমন কোনো দেশের জাহাজে তারা হামলা চালাবে না। কিন্তু তারপরও বিশ্বের শীর্ষস্থানীয় কয়েকটি জাহাজ চলাচলকারী প্রতিষ্ঠান লোহিত সাগর দিয়ে তাদের জাহাজ চালানো পুরোপুরি বন্ধ রেখেছে।

বিষয়ঃ বাংলাদেশ

Share This Article


ইউক্রেনে রাশিয়ার ক্ষেপণাস্ত্র হামলায় নিহত ১৩

‘জর্ডান প্রমাণ করতে চেয়েছে তারা যুক্তরাষ্ট্র ও ইসরাইলের সহযোগী’

ইউক্রেন যুদ্ধ অবসানে চীনের প্রতি যে আহ্বান জানাল জার্মানি

রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধে নিহত হয়েছে ৫০ হাজারে বেশি রুশ সেনা

ইসরায়েলের হামলার আশঙ্কায় ইরানে পারমাণবিক স্থাপনা বন্ধ

ইসরায়েলের কারণে এখনো বাধাগ্রস্ত গাজায় ত্রাণ বিতরণ

কারাগার থেকে এবার গৃহবন্দি অং সান সু চি

ইসরায়েলকে সহায়তা: সরকারের ওপর ক্ষেপেছে জর্ডানের জনগণ

ইসরায়েলকে সহায়তার অভিযোগ, অবস্থান স্পষ্ট করলো সৌদি

ইরানের ওপর নতুন নিষেধাজ্ঞার দাবি ইসরায়েলের

‘আর দেরি নয়, ইরানকে এখনই থামাতে হবে’

শান্তির খোঁজে দলাই লামার দ্বারস্থ হলেন কঙ্গনা