বন্দিদের মুক্তির আলোচনায় ‘প্রকৃত অগ্রগতি’ অর্জিত হয়েছে : ওয়াশিংটন

  আন্তর্জাতিক ডেস্ক
  প্রকাশিতঃ বিকাল ০৫:৩৪, সোমবার, ১২ ফেব্রুয়ারি, ২০২৪, ২৯ মাঘ ১৪৩০

গাজার সর্ব-দক্ষিণের শহর রাফাহতে আশ্রয় গ্রহণকারী প্রায় ১৫ লাখ ফিলিস্তিনি শরণার্থীর নিরাপত্তার ব্যাপারে কোনো পরিকল্পনা ছাড়া তিনি ওই শহরে ইসরায়েলের সামরিক অভিযান সমর্থন করবেন না। 

গাজা উপত্যকায় হামাস’সহ ফিলিস্তিনি প্রতিরোধ সংগঠনগুলোর হাতে আটক ইসরায়েলি পণবন্দিদের মুক্ত করার আলোচনায় ‘প্রকৃত অগ্রগতি’ অর্জিত হয়েছে বলে মার্কিন প্রশাসনের একজন কর্মকর্তা দাবি করেছেন। 

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ওই কর্মকর্তার বরাত দিয়ে বার্তা সংস্থা রয়টার্স এ খবর জানিয়েছে।

ওই কর্মকর্তা বলেছেন, ‘গত কয়েক সপ্তাহ ধরে’ বিষয়টি নিয়ে আলোচনা চলছে। ওই কর্মকর্তা বলেন, রবিবার মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন ও ইসরায়েলি প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহুর মধ্যে ৪৫ মিনিট ধরে ফোনালাপ হয়েছে। ওই আলাপের মূল বিষয় ছিল পণবন্দি মুক্তির সম্ভাব্য চুক্তি।

এখনও বন্দি মুক্তির আলোচনায় ‘উল্লেখযোগ্য দূরত্ব’ রয়েছে জানিয়ে ওই মার্কিন কর্মকর্তা বলেন, ‘দূরত্বটি সত্যিই অনেক বেশি।’

ফোনালাপে বাইডেন স্পষ্ট করে বলেছেন, গাজার সর্ব-দক্ষিণের শহর রাফাহতে আশ্রয় গ্রহণকারী প্রায় ১৫ লাখ ফিলিস্তিনি শরণার্থীর নিরাপত্তার ব্যাপারে কোনো পরিকল্পনা ছাড়া তিনি ওই শহরে ইসরায়েলের সামরিক অভিযান সমর্থন করবেন না। 

ইসরায়েল দাবি করছে, রাফাহ ছাড়া গাজা উপত্যকার বাকি অংশে হামাসকে ‘প্রায় নির্মূল’ করে ফেলা হয়েছে। নেতানিয়াহু দাবি করেছেন, রাফাহতে অভিযান না চালালে গাজা যুদ্ধে ‘বিজয়’ অর্জিত হবে না।

এর আগে শনিবার নেতানিয়াহু রাফাহ শহরে হামলা চালানোর প্রস্তুতি নিতে ইসরায়েলি বাহিনীর প্রতি নির্দেশ জারি করেন। তার ওই নির্দেশের বিরুদ্ধে বিশ্বব্যাপী নিন্দার ঝড় ওঠে; এমনকি ওয়াশিংটনও এর বিরোধিতা করে। কারণ গত চার মাস ধরে গাজা উপত্যকার বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালাতে গিয়ে উপত্যকার বেশিরভাগ অধিবাসীকে রাফাহ শহরে ঠেলে দেয়া হয়েছে। গাজার ২৩ লাখ অধিবাসীর মধ্যে প্রায় ১৫ লাখই এখন রাফাহতে মানবেতর জীবন কাটাচ্ছেন।

Share This Article

বিশ্ব বাজারে কমেছে জ্বালানি তেলের দাম

রাশিয়ার পাঁচ শতাধিক ব্যক্তি-প্রতিষ্ঠানের ওপর নিষেধাজ্ঞা দিল যুক্তরাষ্ট্র

আমাকে নিয়ে কেন এত লোকের সমস্যা: শ্রাবন্তী

আমেরিকা ও ইউরোপের চাপিয়ে দেওয়া সিদ্ধান্ত শেখ হাসিনা গ্রহণ করেননি, এটাই বড় সাফল্য!

মার্চে দুর্ভিক্ষ সৃষ্টির আন্তর্জাতিক ‘চক্রান্ত’, যা বললেন প্রধানমন্ত্রী

বাংলাদেশে ৫০ হাজার টন পেঁয়াজ রপ্তানির অনুমতি ভারতের

গাজায় ইসরায়েলি হামলায় ২৪ ঘণ্টায় শতাধিক নিহত

রমজানে নিত্যপণ্যের সংকট হবে না: প্রধানমন্ত্রী

ক্ষমতার অপব্যবহার যেন না হয় সেদিকে খেয়াল রাখতে হবে, বিচারকদের রাষ্ট্রপতি

বিশ্ব ব্যাংকের সহায়তা অব্যাহত থাকবে: প্রধানমন্ত্রী


নাভালনির মৃত্যুতে রুশ কর্মকর্তার ওপর যুক্তরাজ্যের নিষেধাজ্ঞা

জাহাজের ধাক্কায় সেতু ভেঙে ৫ বাহন নদীতে, নিহত ২

পাকিস্তানের সরকার গঠন নিয়ে অবস্থান জানাল যুক্তরাষ্ট্র

জাতিসংঘের সর্বোচ্চ আদালতের শুনানিতে ইসরায়েলের পক্ষে যুক্তরাষ্ট্র

ভেনেজুয়েলায় স্বর্ণের খনিতে ধস, ২৩ জনের প্রাণহানি

রাশিয়াকে ৪০০ ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র পাঠিয়েছে ইরান

পাকিস্তানে নতুন জোট সরকার, পরাজয়েও জয় বন্দি ইমরানের

পবিত্র রমজানে আল-আকসায় প্রবেশে বিধিনিষেধ দেবে ইসরায়েল

কূটনৈতিক সম্পর্ক তলানিতে, ইসরায়েল থেকে রাষ্ট্রদূত প্রত্যাহার করলো ব্রাজিল

কিমকে গাড়ি উপহার দিলেন পুতিন

আবারও বন্ধ আইফেল টাওয়ার

আফগানিস্তানে ভূমিধসে অন্তত ২৫ জন নিহত