দিনে প্রায় ৬ কোটি ডলার আসছে রেমিট্যান্স

  বাংলাদেশের কথা ডেস্ক
  প্রকাশিতঃ দুপুর ০১:০০, মঙ্গলবার, ২৩ মে, ২০২৩, ৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩০

চলতি মে মাসের ১৯ দিনে দেশে প্রবাস আয় (রেমিট্যান্স) এসেছে ১১২ কোটি ৯২ লাখ ৪০ হাজার ডলার, বাংলাদেশি মুদ্রায় (প্রতি এক ডলার ১০৮ টাকা দরে) যার পরিমাণ ১২ হাজার ১৯৬ কোটি টাকা। সে হিসাবে প্রতিদিন গড়ে আসছে পাঁচ কোটি ৯৪ লাখ ৩৩ হাজার ডলার বা ৬৪২ কোটি টাকা। বাংলাদেশ ব্যাংকের সর্বশেষ প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে। চলতি (২০২২-২০২৩) অর্থবছরের প্রথম মাস জুলাই ও দ্বিতীয় মাস আগস্টে টানা দুই বিলিয়ন ডলার করে রেমিট্যান্স এসেছিল।

 

কিন্তু পরের মাস থেকেই কমতে থাকে রেমিট্যান্স আসার প্রবাহ। টানা ছয় মাস কেটে গেলেও দুই বিলিয়ন ডলারের মাইলফলকে পৌঁছাতে পারেনি। তবে অর্থবছরের নবম মাস মার্চে আবারও দুই বিলিয়ন ডলারের মাইলফলক স্পর্শ করে। একই ধারাবাহিকতায় আসতে থাকে এপ্রিলের শুরুর দিকে।

তবে এপ্রিলের শেষ দিকে আশা জাগিয়েও পড়ে যায় প্রবাহ। পুরো এপ্রিল মাসে আসে ১৬৮ কোটি ৩৪ লাখ ৭০ হাজার ডলার।
বাংলাদেশ ব্যাংকের তথ্য মতে, চলতি মাসের (মে) ১৯ দিনে মোট ১১২ কোটি ৯২ লাখ ৪০ হাজার ডলারের রেমিট্যান্স এসেছে। এর মধ্যে রাষ্ট্রমালিকানাধীন ব্যাংকের মাধ্যমে এসেছে ১৮ কোটি ৪৬ লাখ ৮০ হাজার ডলার।

দুই বিশেষায়িত ব্যাংকের মধ্যে একটির মাধ্যমে এসেছে তিন কোটি ৭৯ লাখ ৯০ হাজার ডলার। বেসরকারি ব্যাংকের মাধ্যমে এসেছে ৯০ কোটি ১৮ লাখ ৬০ হাজার ডলার এবং বিদেশি ব্যাংকগুলোর মাধ্যমে এসেছে ৪৭ লাখ ১০ হাজার ডলার। তবে আলোচিত সময়ে ৯ ব্যাংকের মাধ্যমে কোনো প্রবাস আয় দেশে আসেনি। এর মধ্যে রয়েছে রাষ্ট্রায়ত্ত বাংলাদেশ ডেভেলপমেন্ট ব্যাংক বা বিডিবিএল, বিশেষায়িত রাজশাহী কৃষি উন্নয়ন ব্যাংক বা রাকাব, বেসরকারি ব্যাংকের মধ্যে রয়েছে বেঙ্গল কমার্শিয়াল ব্যাংক, কমিউনিটি ব্যাংক, সিটিজেনস ব্যাংক, সীমান্ত ব্যাংক, বিদেশি খাতের হাবিব ব্যাংক, ন্যাশনাল ব্যাংক অব পাকিস্তান এবং স্টেট ব্যাংক অব ইন্ডিয়া।

Share This Article