বন্ধুর হোটেলে খাওয়া হলো না রাইসুলের

  বাংলাদেশের কথা ডেস্ক
  প্রকাশিতঃ বিকাল ০৫:২৭, সোমবার, ২৭ ডিসেম্বর, ২০২১, ১২ পৌষ ১৪২৮
সড়ক দুর্ঘটনা
সড়ক দুর্ঘটনা

গোপালগঞ্জ প্রতিনিধি:
গোপালগঞ্জে বন্ধুদের হোটেলে খেতে যাওয়ার সময় গাড়ি চাপায় নিহত হয়েছেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (বশেমুরবিপ্রবি) সমাজ বিজ্ঞান বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী রাইসুল ইসলাম শুভ (২০)। সোমবার বেলা ১২টার দিকে ঢাকা-খুলনা মহাসড়কের গোপালগঞ্জ সদর উপজেলার পাথালিয়া টিটিসির সামনে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহত রাইসুল ইসলাম শুভ বগুড়ার কাহালু উপজেলার ভারসন গ্রামের মৃত শামসুর রহমানের ছেলে। আহত অপর তিনজন হলেন- রাজশাহীর মো. জাকির হোসেন, (২১), বগুড়ার মো. নাঈম ইসলাম (২১), ফেনীর মাজহারুল ইসলাম (২০) ও ভ্যানচালক লিকু শেখ (৩৫)।গোপালগঞ্জ ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালের জরুরি বিভাগের চিকিৎসক ডা. মঞ্জুরুল ইসলাম বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

প্রত্যক্ষদর্শী বেইজিং নর্থ চায়না ইলেকট্রিক পাওয়ার ইউনিভার্সিটির মেকানিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিংয়ের ছাত্র ও নিহতের বন্ধু রাজশাহীর জাকির হোসেন বলেন, আমি বগুড়ার মো. নাঈম ইসলাম ও ফেনীর মাজহারুল ইসলাম চায়নায় একই বিশ্ববিদ্যালয়ে লেখাপড়া করি। রাইসুল ইসলাম শুভ ও নাঈম ইসলামের একই এলাকায় বাড়ি ও পরস্পরের বন্ধু। শুভ গোপালগঞ্জে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে সমাজ বিজ্ঞান বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র ও বিশ্ববিদ্যালয়ের নিকটবর্তী চরপাথালিয়া একটি ছাত্র মেসে থাকেন।

রোববার গোপালগঞ্জ দেখার উদ্দেশ্যে শুভর কাছে আমরা বেড়াতে আসি। সোমবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে আমরা চার বন্ধু একসঙ্গে প্রথমে ওই মহাসড়কের পাশে দোলা পেট্রল পাম্পের সামনে একটি হোটেলে নাস্তা করার জন্য যাই। কিন্তু সেখানে ভাল খাবার না থাকায় আমরা ভ্যানে করে চারজন একসঙ্গে ঘোনাপাড়া মোড়ে যাওয়ার জন্য রওনা করি। টিটিসির সামনে পৌঁছালে আমাদের বহনকারী ভ্যানটির ডান পাশের চাকা খুলে যায়। এতে আমরা মহাসড়কের ওপর সিটকে পড়ি। এ সময় পিছন দিক থেকে আসা দোলা পরিবহনের একটি দ্রুতগামী বাস শুভকে চাপা দিলে ঘটনাস্থলেই সে নিহত হয়। অল্পের জন্য আমরা প্রাণে বেঁচে যাই।

পরে স্থানীয় লোকজন আহতদের উদ্ধার করে গোপালগঞ্জ ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে গেলে জরুরি বিভাগে কর্মরত ডাক্তার রাইসুল ইসলাম শুভকে মৃত ঘোষণা করেন।

গোপালগঞ্জ সদর থানার এসআই মারিদুর ইসলাম বলেন, দুর্ঘটনার খবর পেয়ে আমরা ঘটনাস্থলে যাই এবং বাসটি আটক করি। বাসের চালক ও অন্যান্য স্টাফরা পালিয়ে যেতে সক্ষম হয়।

এদিকে বাস চাপায় বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র নিহতের খবর ক্যাম্পাসে এসে পৌঁছালে শিক্ষার্থীরা ক্ষোভে ফেটে পড়ে। বিক্ষুব্ধ শিক্ষার্থীরা ঘোনাপাড়ায় ঢাকা-খুলনা মহাসড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ প্রদর্শন করে এবং বাস চালককে গ্রেফতার ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানায়। এ সময় মহাসড়কে তীব্র যানজটের সৃষ্টি হয়।

বিষয়ঃ বাংলাদেশ

Share This Article

কোটা পদ্ধতির যৌক্তিক সংস্কার আনা এখন সময়ের দাবি: আরেফিন সিদ্দিক

স্বামীকে তালাক দিলেন রাজকন্যা শেখা মাহরা

র‍্যাঙ্কিংয়ে অবনতি ব্রাজিলের, শীর্ষেই থাকছে আর্জেন্টিনা

আন্দোলনকারীদের থেকে ইতিবাচক বার্তা পেয়েছি: তথ্য প্রতিমন্ত্রী

চার দফা না মানলে আট দফা নিয়ে কথা বলার সুযোগ নেই

অচল দেশ সচল হয়েছে, সর্বমহলে প্রধানমন্ত্রীর প্রশংসা

আন্দোলন নিয়ে ভারত সরকারকে ‘নোট’ দিয়েছে ঢাকা : পররাষ্ট্রমন্ত্রী

নিরাপত্তার স্বার্থে শিক্ষার্থীদের নিজগৃহে অবস্থানের অনুরোধ শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের

তালিকা হচ্ছে গা-ঢাকা দেওয়া আওয়ামী লীগ নেতাদের

যুক্তরাজ্যের নতুন সরকার নিয়ে যা বললেন জেডি ভ্যান্স