আজ বীরপ্রতীক তারামন বিবির মৃত্যুবার্ষিকী

  বাংলাদেশের কথা ডেস্ক
  প্রকাশিতঃ সকাল ১০:৫৬, বুধবার, ১ ডিসেম্বর, ২০২১, ১৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৮

নিউজ ডেস্কঃ আজ বীরপ্রতীক তারামন বিবির তৃতীয় মৃত্যুবার্ষিকী। ২০১৮ সালের ১ ডিসেম্বর কুড়িগ্রামের রাজিবপুর উপজেলা সদরের কাচারীপাড়া এলাকায় নিজ বাড়িতে শ্বাসযন্ত্রের প্রদাহজনিত রোগে ভোগার পর মারা যান তিনি।

তারামন বিবি ১৯৫৭ সালে কুড়িগ্রাম জেলার চর রাজিবপুর উপজেলার শংকর মাধবপুর গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। প্রয়াত আব্দুস সোবহান ও কুলসুম বিবি দম্পতির সাত ছেলেমেয়ের মধ্যে তৃতীয় ছিলেন তারামন বিবি।

১৯৭১ সালে মুক্তিযুদ্ধের সময় মুক্তিযোদ্ধাদের ক্যাম্পে রান্না, তাদের অস্ত্র লুকিয়ে রাখা এবং পাকিস্তানি বাহিনীর খবর সংগ্রহ করতেন ১৪ বছর বয়সী তারামন। রান্না করতে করতে অস্ত্র চালাতে শেখেন তিনি। তারপর রান্নার খুন্তি ফেলে রাইফেল হাতে মুক্তিযোদ্ধাদের সঙ্গে অংশ নেন সম্মুখ সমরে।

মুক্তিযুদ্ধে অবদানের জন্য তাকে বীরপ্রতীক খেতাব দেয়া হলেও সে কথা তিনি দীর্ঘ ২৫ বছর জানতে পারেননি। ১৯৯৫ সালের শেষ দিকে আনুষ্ঠানিকভাবে তার হাতে বীরপ্রতীক খেতাবের পদক তুলে দেয়া হয়। বীরপ্রতীক খেতাবপ্রাপ্ত মাত্র দু'জন নারীর মধ্যে তারামন বিবি একজন।

মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে বাড়িতে কোরআনখানি এবং মিলাদ মাহফিলের আয়োজন করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন তারামন বিবির ছেলে আবু তাহের। এ ছাড়া জেলা শহরের ব্যাপারীপাড়ায় অবস্থিত উত্তরবঙ্গ জাদুঘরের আয়োজনে সন্ধ্যায় জাদুঘর চত্বরে মোমবাতি প্রজ্বালন ও স্মরণসভা অনুষ্ঠিত হবে বলে জানিয়েছেন জাদুঘরের প্রতিষ্ঠাতা এস এম আব্রাহাম লিংকন।

Share This Article