‘বঙ্গবন্ধু মেডেল ফর ডিপ্লোম্যাটিক এক্সিলেন্স-২০২০’ পদক পেলেন দুই কূটনীতিক

  বাংলাদেশের কথা ডেস্ক
  প্রকাশিতঃ বিকাল ০৩:২৫, সোমবার, ২০ ডিসেম্বর, ২০২১, ৫ পৌষ ১৪২৮

দেশের স্বার্থ রক্ষা এবং সম্পর্ক উন্নয়নে দুই কূটনীতিককে ‘বঙ্গবন্ধু মেডেল ফর ডিপ্লোম্যাটিক এক্সিলেন্স-২০২০’ দেওয়া হয়েছে। পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মেরিটাইম সচিব রিয়ার এডমিরাল অব. মো. খুরশেদ আলম এবং সংযুক্ত আরব আমিরাতের সদ্য বিদায়ী রাষ্ট্রদূত সাইদ মোহাম্মদ আল মেহরিকে এ পুরস্কার দেওয়া হয়।

সোমবার (২০ ডিসেম্বর) রাজধানীর ফরেন সার্ভিস একাডেমিতে এক অনুষ্ঠানে দুই কূটনীতিককে এ পুরস্কার দেওয়া হয়।  

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে গণভবন থেকে ভার্চুয়ালি যুক্ত হন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী মো. শাহরিয়ার আলম পুরস্কার পাওয়া ব্যক্তির নাম ঘোষণা করেন। আর প্রধানমন্ত্রীর পক্ষে পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন দুই কূটনীতিকের হাতে পদক তুলে দেন।

পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানায়, কূটনীতিক খুরশেদ আলম বাংলাদেশের সমুদ্রসীমা নির্ধারণ, সুনীল অর্থনীতি উন্নয়ন ও আন্তর্জাতিক সমুদ্র কূটনীতিতে গুরুত্বপূর্ণ অবদানের জন্য এ পদক দেওয়া হয়।   

এ কূটনীতিক ভারত ও মিয়ানমারের সঙ্গে সমুদ্রসীমা সংক্রান্ত মামলায় বাংলাদেশের ডেপুটি এজেন্ট হিসেবে আদালতে সমদূরত্ব নীতির পরিবর্তে ন্যায্যতার নীতি প্রতিষ্ঠার পক্ষে প্রয়োজনীয় তথ্য-উপাত্ত সংগ্রহ করেন। তাছাড়া তার নেতৃত্বে বঙ্গোপসাগরে জরিপ কার্যক্রম সম্পন্ন করে বাংলাদেশ ২০১১ সালে আনক্লোস নির্ধারিত সময়সীমার মধ্যেই মহীসোপান সংক্রান্ত দাবি উত্থাপন করে। 

তিনি বাংলাদেশের সুনীল অর্থনীতির উন্নয়ন কর্ম পরিকল্পনা প্রণয়ন করেন। এছাড়া তিনি গত সালে আন্তর্জাতিক সি-বেড অথরিটির প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হয়েছেন।

অন্যদিকে আমিরাতের সদ্য বিদায়ী রাষ্ট্রদূত মেহরি বাংলাদেশের সঙ্গে সংযুক্ত আরব আমিরাতের দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক উন্নয়ন ও পারস্পরিক স্বার্থ সুরক্ষায় অবদানের স্বীকৃতিস্বরূপ তাকে এ পুরস্কার দেওয়া হয়। তিনি বাংলাদেশ থেকে সংযুক্ত আরব আমিরাতে শ্রমশক্তি রফতানি পুনরায় চালু করার ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখেন। 

তাছাড়া, বাংলাদেশের সমুদ্রবন্দর উন্নয়ন, বিদ্যুৎ খাতের উন্নয়ন এবং বিশেষ অর্থনৈতিক অঞ্চলসমূহে আমিরাতের বিনিয়োগ বিষয়ে একাধিক দ্বিপাক্ষিক চুক্তি স্বাক্ষরের ক্ষেত্রে উল্লেখযোগ্য ভূমিকা পালন করেন এ রাষ্ট্রদূত।

অনুষ্ঠানে জানানো হয়, মুজিববর্ষ উপলক্ষে একজন দেশি ও একজন বিদেশি কূটনীতিককে বঙ্গবন্ধু মেডেল ফর ডিপ্লোম্যাটিক এক্সিলেন্স দেওয়া সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। এখন থেকে প্রতি বছরই এ পুরস্কার দেওয়া হবে।

অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রীর ৭৫তম জন্মদিন উপলক্ষে ‘শেখ হাসিনা : বিমুগ্ধ বিস্ময়’ শিরোনামে একটি বইয়ের মোড়ক উন্মোচন করা হয়। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গণভবন থেকে বইটির মোড়ক উন্মোচন করেন। বইটির সম্পাদনা করেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী আব্দুল মোমেন।

Share This Article


স্পিকারের সঙ্গে বেলজিয়ামে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূতের সাক্ষাৎ

বিচারকের নতুন পদ সৃষ্টির উদ্যোগ নিয়েছে সরকার : আইনমন্ত্রী

‘দেশে ৪০ শতাংশ শিশু নির্যাতনের শিকার হয়’

ইতিহাস বিকৃত ও বঙ্গবন্ধুর অবদান অস্বীকার এক শ্রেণির মানুষের মজ্জাগত: প্রধানমন্ত্রী

আর কাউকে ঢুকতে দেওয়া হবে না, রোহিঙ্গা অনুপ্রবেশ প্রসঙ্গে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

সম্পর্কের নতুন বার্তা নিয়ে ফের ঢাকা আসছেন মার্কিন কর্মকর্তা আফরিন

পাঁচ লাখ শিক্ষক-কর্মচারীকে ৬ মাসের মধ্যে অবসর সুবিধা প্রদানের নির্দেশ

৭৫ পরবর্তী সমুদ্রসীমার অধিকার নিয়ে কেউ কথা বলেনি: প্রধানমন্ত্রী

‘বেচি দই, কিনি বই’ স্লোগানের রূপকারের জন্য প্রধানমন্ত্রীর বড় ঘোষণা

পাঁচ লাখ শিক্ষক-কর্মচারীর অবসর সুবিধা নিয়ে রায় আজ

আপাতত ছাপানো টাকা বাজারে ছাড়বে না বাংলাদেশ ব্যাংক

বন্দি অবস্থায় যেভাবে ভাষা আন্দোলনের নেতৃত্ব দিয়েছিলেন বঙ্গবন্ধু