স্থানীয় সরকার শক্তিশালী হলে উন্নয়ন ত্বরান্বিত হবে : তাজুল ইসলাম

  বাংলাদেশের কথা ডেস্ক
  প্রকাশিতঃ সন্ধ্যা ০৭:৪০, রবিবার, ১৯ ডিসেম্বর, ২০২১, ৪ পৌষ ১৪২৮

স্থানীয় সরকার প্রতিষ্ঠানের আইন সংশোধনীর মাধ্যমে প্রতিষ্ঠানগুলো আরো বেশি কার্যকর ও শক্তিশালী হওয়ার পাশাপাশি সক্ষমতা অর্জন করবে বলে মন্তব্য করেছেন স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায়মন্ত্রী (এলজিআরডি মন্ত্রী) মো. তাজুল ইসলাম। 

রোববার রাজধানীর খামারবাড়িতে কৃষিবিদ ইনস্টিটিউশনে গভর্নেন্স অ্যাডভোকেসি ফোরাম আয়োজিত ‘কার্যকর স্থানীয় সরকার জাতীয় কনভেনশন-২০২১’ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা জানান।

মন্ত্রী বলেন, সিটি কর্পোরেশন, জেলা পরিষদ, পৌরসভা, উপজেলা পরিষদ এমনকি ইউনিয়ন পরিষদের সব আইন পর্যালোচনা করে যুগোপযোগী করতে সংশোধন করা হচ্ছে। আইন সংশোধন হলে স্থানীয় সরকার প্রতিষ্ঠানগুলো আরো বেশি শক্তিশালী, কার্যকর ও সক্ষম হবে। এসব প্রতিষ্ঠানের কোথাও কোনো দুর্বলতা থাকলে সেগুলো খুঁজে বের করার কথাও বলেন তিনি।

তিনি বলেন, সারাবিশ্বে গবেষণার মাধ্যমে প্রমাণিত যে, স্থানীয় সরকার প্রতিষ্ঠানগুলো যত বেশি শক্তিশালী করা যাবে তত বেশি উন্নয়ন ত্বরান্বিত হবে। ইউনিয়ন ও উপজেলা পরিষদের সক্ষমতা বাড়ানোর পাশাপাশি স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা নিশ্চিত করতে হবে। এজন্য দরকার জনগণের অংশগ্রহণ।

মন্ত্রী বলেন, কোনো প্রতিষ্ঠানকে জবাবদিহিতা ও স্বচ্ছতার আওতায় আনার অর্থ হেয় করা না। বরং প্রতিষ্ঠানের কার্যক্রম মনিটরিং করা, সরকার ও জনগণ প্রদত্ত ক্ষমতার অপব্যবহার হচ্ছে কি না তা পর্যবেক্ষণ করা।

মো. তাজুল ইসলাম জানান, দেশকে এগিয়ে নিতে হলে জনপ্রতিনিধি, সরকারি কর্মকর্তাসহ সবাইকে সহাবস্থান করে কাজ করতে হবে। সরকারের লক্ষ্যমাত্রা অর্জন করতে হলে সমন্বয় করে কাজ করার বিকল্প নেই। সব শ্রেণি-পেশার মানুষের অংশগ্রহণ ছাড়া নির্দিষ্ট লক্ষ্যে পৌঁছানো কঠিন।

জনপ্রতিনিধিদের নিয়মিত অফিস করার আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, চেয়ারম্যান-মেম্বার নির্বাচিত হয়ে এটাকে অপশনাল হিসেবে নেয়ার কোনো সুযোগ নেই। জনগণ আপনাকে জোর করে ক্ষমতায় বসাননি। বরং আপনি জনগণের কাছে গিয়ে ভোট চেয়ে নানা প্রতিশ্রুতি দিয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। সেই প্রতিশ্রুতি বাস্তবায়নের দায়িত্ব নিতে হবে।

জনপ্রতিনিধিদের নাগরিক সেবায় আরো বেশি মনোনিবেশ করার আহ্বান জানিয়ে মন্ত্রী বলেন, জনসম্পৃক্ততা বাড়াতে হবে। সেই সঙ্গে সঙ্গে তাদের চাহিদাগুলো পূরণ করতে হবে। জনপ্রতিনিধিদের সম্মানিত ও মর্যাদাশীল করার জন্য তার মন্ত্রণালয় নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে।

কেন্দ্রীয় সরকারের ওপর নির্ভরতা কমিয়ে আত্মনির্ভরশীল হওয়ার তাগিদ দিয়ে তাজুল ইসলাম বলেন, স্থানীয় সরকার প্রতিষ্ঠানগুলোকে রাজস্ব আয় বাড়াতে হবে। এজন্য মানুষের ওপর আবার জুলুম করা যাবে না। নাগরিক সেবা বৃদ্ধিই পারে রাজস্ব আয় বাড়াতে। জনগণ যখন বুঝবে তাদের দেওয়া অর্থ তাদের কল্যাণে ব্যবহার হবে তাহলে তারা রাজস্ব দিতে স্বতঃস্ফূর্তভাবে অংশ নেবে।

Share This Article


ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ ট্রেন চলাচল বন্ধ

গ্যাস, বিদ্যুৎ, জ্বালানি : তিন খাতেই সংকট কাটছে !

আজ চট্টগ্রামে জনসভায় ভাষণ দেবেন প্রধানমন্ত্রী

দেশের ইতিহাসে সর্বোচ্চ স্বর্ণের দাম

ডিসেম্বরে মূল্যস্ফীতি আরও কমবে : পরিকল্পনামন্ত্রী

মার্চ-এপ্রিলে ডলারের ঘাটতি থাকবে না: পরিকল্পনামন্ত্রী

রোহিঙ্গাদের দেখতে বাংলাদেশে আসছেন মার্কিন সহকারী পররাষ্ট্রমন্ত্রী

জুনের মধ্যে ডিজেলচালিত বিদুৎকেন্দ্রগুলো বন্ধ করে দেওয়া হবে: প্রতিমন্ত্রী

আবারও আন্তর্জাতিক অঙ্গনে ছাপ রাখলো মাইন্ডশেয়ার বাংলাদেশ!

সিদ্ধান্ত পরিবর্তন করবে বিএনপি, আশা আইজিপির

রোহিঙ্গা পুনর্বাসনে আলোচনা করতে ঢাকায় আসছেন মার্কিন মন্ত্রী

আন্তর্জাতিক প্রতিবন্ধী দিবস আজ