এবার নানান অপরাধে জড়াচ্ছে রোহিঙ্গা নারীরা!

  বাংলাদেশের কথা ডেস্ক
  প্রকাশিতঃ দুপুর ০১:১২, সোমবার, ৩০ মে, ২০২২, ১৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯

নিজস্ব প্রতিবেদক : অপরাধীদের নিরাপদ আশ্রয়স্থল হয়ে উঠেছে কক্সবাজারের উখিয়া রোহিঙ্গা ক্যাম্পগুলো। ইয়াবা ও মানবপাচারের মতো অপরাধমূলক কাজে পুরুষের পাশাপাশি কমিশনের ভিত্তিতে  ব্যবহার করা হচ্ছে বিবাহিতা ও স্বামী পরিত্যক্তা রোহিঙ্গা নারীদেরও।

জানা গেছে, রোহিঙ্গা নারীদের অস্ত্র চালানো প্রশিক্ষণ থেকে শুরু করে ইন্টারনেট ব্যবহার, বিদেশে তথ্য আদান-প্রদান ও ক্যাম্পের বিভিন্ন গোপনীয় তথ্য ফাঁস অপরাধে জড়িত করা হচ্ছে। এছাড়াও রাষ্ট্রদ্রোহিতার মতো নানা অপরাধে জড়িয়ে পড়েছে তারা। এসব কাজে তাদের সহযোগিতা দিচ্ছে সশস্ত্র রোহিঙ্গা সন্ত্রাসীরা।

জানা যায়, আশ্রয় ক্যাম্পগুলোতে কারাতে ও অস্ত্র চালনায় প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত ২ শতাধিক নারী রয়েছে। এদের মধ্যে কেউ কেউ কম্পিউটার-ল্যাপটপ পরিচালনায়ও দক্ষ। তাদের কাজ হচ্ছে ক্যাম্পে কারা মাদক কারবারে জড়িত, কার কাছে গচ্ছিত টাকা আছে,মালয়েশিয়াগামী রোহিঙ্গা নারী-পুরুষ কারা, তার খোঁজ-খবর নেয়া এবং বিদেশে অবস্থানকারী রোহিঙ্গা নেতাদের কাছে ইন্টারনেটে গোপন তথ্য পাচার করা।

আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরা সন্ত্রাসীদের ধরতে অভিযান অব্যাহত রেখেছে। তবে অভিযানের আগে মুঠোফোনে সশস্ত্র রোহিঙ্গাদের কাছে খবর চলে যাচ্ছে। এসব খবর পৌঁছে দেয়ার কাজে পুরুষদের পাশাপাশি নারীদেরও ব্যবহার করা হচ্ছে।

স্থানীয়রা জানান, রোহিঙ্গাদের অপকর্মের কোন শেষ নেই। হত্যা থেকে শুরু করে টাকার বিনিময়ে এমন কোন কাজ নেই, যা তারা করতে পারে না। তাদের কারণে নষ্ট হচ্ছে পরিবেশ। ইয়াবা ও মানবপাচারে রোহিঙ্গা নারীদের তৎপরতা চোখে পড়ার মতো।

কমিশনভিত্তিক রোহিঙ্গা নারীদেরই নিরাপদ মনে করছেন দালালরা। মাদকের বাইরে মানবপাচার ও  ছিনতাইয়ের মতো জঘন্য অপরাধের সঙ্গেও রোহিঙ্গা নারীরা জড়িয়ে আছে বলেও জানান তারা ।

বিষয়ঃ রোহিঙ্গা

Share This Article