বিজয়ের দিনেও পরাধীন ছিলো যেসব এলাকা

  বাংলাদেশের কথা ডেস্ক
  প্রকাশিতঃ রাত ১১:৫৫, বুধবার, ১৫ ডিসেম্বর, ২০২১, ৩০ অগ্রহায়ণ ১৪২৮
ফাইল  ফটো
ফাইল ফটো

বাংলাদেশের কথা ডেস্ক: বাঙালির নিজের রাষ্ট্র পাওয়ার সাধ পূর্ণ হয়েছিল ১৯৭১ সালের ১৬ ডিসেম্বর। ৯৩ হাজার পাকিস্তানি সেনা প্রাণ বাঁচাতে অস্ত্র সমর্পণ করার পর পরই বাস্তবায়ন হয় স্বপ্নের বাংলাদেশের। পাক বাহিনীর সেনাপতি আমির আব্দুল্লাহ খান নিয়াজী তার সহযোগীদের নিয়ে অস্ত্র সমর্পণ করলেও সেদিন স্বাধীন হয়নি গোটা বাংলাদেশ। রাজধানীরই একটি অঞ্চলসহ দেশের বেশ কিছু এলাকায় তখনও চলছিল যুদ্ধ।

পাকিস্তানি আত্মসমর্পণের পর এই যুদ্ধ চালিয়ে যায় দখলদার বাহিনীর দেশীয় দোসর রাজাকার, আলবদর, আল শামস আর বিহারিরা। প্রভু নতি স্বীকার করলেও তারা তখনও পাকিস্তান রক্ষার চেষ্টায় চালিয়ে গেছে বাঙালি নিধন। কোনো কোনো জেলায় অবশ্য সক্রিয় ছিল পাকিস্তানি সেনারাও।

১৬ ডিসেম্বরের বিজয়ের পর দিন স্বাধীন হয় চট্টগ্রাম, সিলেট, নোয়াখালী, কিশোরগঞ্জ। আর ঢাকার পতনের পরেও উত্তরাঞ্চলে পাকিস্তানিরা প্রতিরোধ যুদ্ধ অব্যাহত রাখে। তবে ১৮ ডিসেম্বর বগুড়া, গাইবান্ধা, রংপুর, নাটোর ও নওগাঁর পতন ঘটে ও পাকিস্তানিরা আনুষ্ঠানিকভাবে যৌথবাহিনীর কাছে আত্মসমর্পণ করে।

কিশোরগঞ্জ থেকে পাকিস্তানি সেনারা পালিয়ে এসেছিল আগেই। কিন্তু তাদের এ দেশীয় দোসররা মুক্তিবাহিনীর জয়যাত্রা ঠেকানোর ব্যর্থ চেষ্টা করছিল। তবে ১৭ ডিসেম্বর সকালে একটি খোলা জিপে করে মুক্তিযোদ্ধার দল শহরে ঢোকে। ওই দিন দিশেহারা রাজাকাররা শহরের ইসলামীয়া ছাত্রাবাস মাঠে মুক্তিযোদ্ধাদের কাছে অস্ত্র জমা দিয়ে আত্মসমর্পণ করে।

১৬ ডিসেম্বরের ছয় দিন পর স্বাধীন হয় বরিশালের আগৈলঝাড়া ও গৌরনদী। মুক্তিযোদ্ধাদেরকে দীর্ঘ ২৮ দিন ঠেকিয়ে রাখার চেষ্টা করে ২২ ডিসেম্বর শতাধিক পাক সেনা আর তাদের দালালরা আত্মসমর্পণ করে।

সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে যখন পাকিস্তানি বাহিনী বাহিনীর আত্মসমর্পণ পর্ব চলছিলো তখন মাত্র ১২ কিলোমিটার দূরের মিরপুরের বিহারী আর রাজাকাররা কোনভাবেই আত্মসমর্পণ করতে রাজি হয়নি। সেখানে প্রধানত বিহারিরা অস্ত্রবাজি চালাতে থাকে পরের মাস জানুয়ারির পুরোটা জুড়েই। অবশেষে ১৯৭২ সালের ৩১ জানুয়ারি বাংলাদেশ সেনাবাহিনী অভিযান চালায় মিরপুরে। অস্ত্রধারীরা এরপর আর সাহস দেখায়নি।

সূত্র: ঢাকা টাইমস, এনটিভি, যুগান্তর ও উইকিপিডিয়া

বিষয়ঃ বাংলাদেশ

Share This Article


‘স্বাস্থ্যসেবা সহজলভ্য করতে সরকার নিরন্তর প্রয়াস চালাচ্ছে’

‘পরিবেশবান্ধব ব্লক ইট তৈরিতে প্রণোদনা প্যাকেজ ঘোষণা করবে সরকার’

রংপুরে সূর্যমুখীর চাষ বেড়েছে

সরকারের একার পক্ষে দ্রব্যমূল্য নিয়ন্ত্রণ করা কঠিন, বললেন দীপু মনি

ঢাকা সফরে আসছেন বিশ্বব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক

গণতান্ত্রিক ধারা অব্যাহত আছে বলেই দেশে উন্নয়ন হচ্ছে : প্রধানমন্ত্রী

বিদ্যুতের ভর্তুকি আমরা সমন্বয় করতে চাই : ওবায়দুল কাদের

বাঁ থেকে এলিন লাউবাকের, মাইকেল শিফার ও আফরিন আক্তার -ছবি : সংগৃহীত

সম্পর্ক এগিয়ে নিতে ঢাকায় মার্কিন প্রতিনিধি দল

তাপমাত্রা নিয়ে নতুন তথ্য আবহাওয়া অফিসের

মার্চে দুর্ভিক্ষ সৃষ্টির আন্তর্জাতিক ‘চক্রান্ত’, যা বললেন প্রধানমন্ত্রী

বাংলাদেশে ৫০ হাজার টন পেঁয়াজ রপ্তানির অনুমতি ভারতের

রমজানে নিত্যপণ্যের সংকট হবে না: প্রধানমন্ত্রী