সকাল ০৯:৩১, বুধবার, ১৭ আগস্ট, ২০২২, ২ ভাদ্র

বিমানের ভাড়া কমানোর দাবি আটাব‘র

বিমান
বিমান

মতিঝিল প্রতিনিধি: বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের টিকিটের দাম মধ্যপ্রাচ্যের বিভিন্ন রুটে কমানো, আসন সংকট নিরসন ও ফ্লাইট সংখ্যা বাড়ানোর দাবি জানিয়েছে অ্যাসোসিয়েশন অব ট্রাভেল এজেন্টস অব বাংলাদেশ (আটাব)। নয়াপল্টনে স্থানীয় একটি হোটেলে সংগঠনটির পক্ষ থেকে মঙ্গলবার সংবাদ সম্মেলনে এ দাবি জানানো হয়।

টাবের সভাপতি মনছুর আহামেদ কালাম বলেন, মধ্যপ্রাচ্যে ভ্রমণকারীদের অধিকাংশ প্রবাসী কর্মী, যারা আমাদের দেশের রেমিট্যান্স যোদ্ধা। এ শ্রেণির যাত্রীদের কষ্টে অর্জিত অর্থ আমাদের অর্থনীতিকে চাঙা করে রাখছে। এর ফলে দেশ প্রচুর বৈদেশিক মুদ্রা অর্জন করছে। সম্প্রতি লক্ষ্য করা যাচ্ছে, মধ্যপ্রাচ্যের বিভিন্ন রুটে এয়ারলাইন্সগুলো প্রতিযোগিতা-মূলকভাবে টিকিটের খঋগ অস্বাভাবিক হারে বাড়িয়েছে। যার কারণে প্রবাসী যাত্রীরা বিড়ম্বনার শিকার হচ্ছেন।

তিনি পরিসংখ্যান উপস্থাপন করে আরও বলেন, মধ্যপ্রাচ্যের বিভিন্ন দেশের রুটে যাত্রীদের নভেম্বর-২০২১ পর্যন্ত টিকিটের মূল্য ছিল ৪০ হাজার থেকে ৪৫ হাজার টাকা। বর্তমানে মূল্যবৃদ্ধি হয়ে তা হয়েছে ৭০ হাজার থেকে ৯০ হাজার টাকা। সৌদি আরব পথে আগে ভাড়া ছিল ৪২ হাজার টাকা, বর্তমানে ৭৫ হাজার টাকা। এ অতিরিক্ত ভাড়া বহন করে কর্মস্থলে যাওয়া যাত্রীদের জন্য প্রায় অসম্ভব ও কষ্টসাধ্য।

আটাব বলছে, সম্প্রতি সৌদি সরকারের তরফে বাংলাদেশিদের জন্য চাকরি ভিসার কোটা বৃদ্ধি করা হয়েছে। এ ছাড়া সংযুক্ত আরব আমিরাতে বাংলাদেশি যাত্রীদের অনুকূলে ভিজিট ভিসা ও কর্মসংস্থান ভিসা অধিক হারে ইস্যু হচ্ছে বলে আটাব জানতে পেরেছে। ভিসা সংখ্যা বৃদ্ধি পাওয়ায় আসন চাহিদা বেড়েছে। এই সুযোগে এয়ারলাইন্সগুলো অস্বাভাবিক হারে ভাড়া বৃদ্ধি করছে। এ কারণে মধ্যপ্রাচ্যগামী

যাত্রীরা অসহায় অবস্থায় পড়েছে। টিকিটের মূল্য কমানো না হলে প্রবাসগামীদের ব্যয় বাড়বে। উদ্ভূত পরিস্থিতিতে মধ্যপ্রাচ্য রুটে অতিরিক্ত ফ্লাইট পরিচালনা করা জরুরি। তাতে আসন সংখ্যা বাড়বে, টিকিটের মূল্য স্বাভাবিক পর্যায়ে আনা সম্ভব হবে। বাংলাদেশ থেকে মধ্যপ্রাচ্যগামী যাত্রীদের ১৫-২০ শতাংশ বহন করে থাকে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স।

Share This Article


রান্নার সরঞ্জাম সরানোর নির্দেশ: মধ্যরাতে বিক্ষোভ খুবির ছাত্রীদের

গার্ডার দুর্ঘটনায় নিহতদের লাশ হস্তান্তর

পুরান ঢাকায় বহাল তবিয়তে দুই হাজার কেমিক্যাল প্রতিষ্ঠান

গাফিলতির মৃত্যু: সমাধানে আসে নানা সুপারিশ, নেই বাস্তবায়ন

ডলার নিয়ন্ত্রণে কমেছে বিলাসি পণ্য আমদানি!

ডলার অর্থায়নে কমলো সুদহার

নতুন ১২ ট্রাস্টি পেল নর্থ সাউথ

দুঃস্থদের মাঝে খাদ্যপণ্য বিতরণ করল শাহ্জালাল ইসলামী ব্যাংক

শুদ্ধাচার পুরস্কার প্রদান করেছে ইউসিবি

ছাত্রলীগ নেতাকর্মীদের পেটানোর ঘটনায় তদন্ত কমিটি

সিআইডি প্রধান হলেন মোহাম্মদ আলী মিয়া

যুক্তরাষ্ট্র চাইছে ইউক্রেনের দ্বন্দ্ব বাড়াতে: পুতিন

আলিয়া-কারিনা

আলিয়া অন্তঃসত্ত্বা, যা বললেন কারিনা...

ওয়াসার পানির শুল্ক নির্ধারণের ব্যাখ্যা চান হাইকোর্ট

ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের গাফিলতি পেয়েছে তদন্ত কমিটি