সকাল ১১:১২, রবিবার, ২৬ জুন, ২০২২, ১২ আষাঢ়

রাশিয়াকে নিষেধাজ্ঞা দিয়ে উল্টো ধসে পড়ছে ইউরোপের অর্থনীতি

ইউক্রেন-রাশিয়া যুদ্ধের প্রথমদিকে মনে হয়েছিলো যুদ্ধ শুরু হলেই রাশিয়ার উপর ঝাপিয়ে পড়বে যুক্তরাষ্ট্র-ন্যাটোসহ পুরো পশ্চিমা বিশ্ব। কিন্তু বাস্তবে তেমনটা হয়নি, বরং রাশিয়ার ওপর নিষেধাজ্ঞা দিয়ে উল্টো নাজেহাল হয়ে পড়েছে ইউরোপ।

রাশিয়ার জ্বালানীর ওপর সবচেয়ে বেশি নির্ভরশীল জার্মানিতে জ্বালানি সংকট দেখা দিয়েছে। অথচ রাশিয়া এখনও জার্মানীতে জ্বালানী সরবরাহ বন্ধেই করেনি। জার্মানিতে মার্চ মাসে মুদ্রাস্ফীতি পৌঁছেছে সাত দশমিক তিন শতাংশে। গত চার দশকে এই পরিমাণ মুদ্রাস্ফীতি হয়নি দেশটিতে।

জার্মান চ্যান্সেলর ওলফ শলৎস বলেছেন, রাশিয়া যেভাবে পোল্যান্ড এবং বুলগেরিয়ায় গ্যাস সরবরাহ বন্ধ করেছে, তেমনি জার্মানিতেও করতে পারে। আর সেটি হলে ভয়ঙ্কর সংকট মোকাবেলা করতে হবে জার্মানিকে।

১৯৮১ সালে ইরান-ইরাক যুদ্ধের কারণে তেলের দাম বহু গুণ বেড়ে যাওয়ার ফলে মুদ্রাস্ফীতি ঘটেছিল। এবার ইউক্রেন যুদ্ধের কারণে ফের মুদ্রাস্ফীতি ঘটছে।

এদিকে ইউক্রেন যুদ্ধের প্রভাব পড়েছে ইউরোপীয় অঞ্চলের অন্যান্য দেশেও। সংকটের ভয়ে ইউরোপে এখন জ্বালানির তেলের দাম আকাশচুম্বী। এতে এপ্রিলে মুদ্রাস্ফীতির হার ৭.৫ শতাংশে ঠেকেছে।

ইউরোপিয়ান ইউনিয়ন জানিয়েছে, ১৯৯৭ সালের পর এবারই প্রথম মুদ্রাস্ফীতির এমন উল্লম্ফন। আগের রেকর্ড ছিল ৭.৪ শতাংশ। শুধু ইউরোপে নয়, যুক্তরাষ্ট্রের মুদ্রাস্ফীতিও ৮.৫ শতাংশ।

জ্বালানিতে খরচ বাড়ায় ভোগ্য পণ্যের দামও বেড়েছে। গত বছরের এই সময়ের তুলনায় এবার ইউরোপীয়দের খরচ ৩৮ শতাংশ বেড়েছে।

ইউক্রেনে রুশ সেনা অভিযানের পর থেকে রাশিয়ার জ্বালানির ওপর নিষেধাজ্ঞা দেয় নানা দেশ। বিশ্বজুড়েই যার প্রভাব পড়ে। এতে ইউরো অঞ্চলের  ৩৪ কোটি ৩০ লাখ মানুষ সরাসরি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।

ইউরোপিয় ইউনিয়নভূক্ত ১৯টি দেশের ২০২২ সালের প্রথম তিন মাসের প্রবৃদ্ধি ০.২ শতাংশ। ইউরোপজুড়ে জিনিসপত্রের দাম গত মার্চ মাসের তুলনায় সাত দশমিক চার শতাংশ বৃদ্ধি পেয়েছে, যা অভূতপূর্ব।

সমস্যা কেবল জার্মানির নয়, গোটা বিশ্বজুড়ে অর্থনৈতিক সংকট ক্রমশ স্পষ্ট হচ্ছে। গত একমাস ধরে কার্যত ধুঁকছে শ্রীলঙ্কা। হাঙ্গেরি জ্বালানি এবং খাবারের দাম ফ্রিজ করে দিয়েছে। জাপানে ভয়াবহ মুদ্রাস্ফীতির আশঙ্কা দেখা দিয়েছে।

ইন্টারন্যাশনাল মানিটারি ফান্ড জানিয়েছে, ইউক্রেন যুদ্ধের জন্য আফ্রিকায় খাদ্য সংকট শুরু হয়েছে, যা সামাজিক লড়াইয়ের চেহারা নিতে পারে। সব মিলিয়ে গোটা বিশ্বজুড়েই এক অস্বস্তিকর অবস্থা তৈরি হয়েছে। ইউক্রেন যুদ্ধ সেই অবস্থায় আরো ইন্ধন দিচ্ছে বলে বিশেষজ্ঞদের মত।

Share This Article


ফাইল ফটো

বাংলাদেশ একটি গুরুত্বপূর্ণ দেশ: বাইডেন

ফাইল ফটো

একদিনে ৩৫ ডেঙ্গু রোগী হাসপাতালে

পদ্মা সেতু পার হয়ে উচ্ছ্বসিত চালক ও যাত্রীরা

ফাইল ফটো

সর্ব সাধারণের জন্য খুলে দেওয়া হলো পদ্মা সেতু, যানবাহনের দীর্ঘ সারি

ফাইল ফটো

‘যতবার পদ্মা পাড়ি দেব, ততবার প্রধানমন্ত্রীকে স্যালুট জানাব’

বিশ্ব গণমাধ্যমে পদ্মা সেতুর উদ্বোধনের খবর

শুরুতেই খালেদের জোড়া আঘাত

সাঁতরে গিয়ে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে কথা বললো কিশোরী

পাকিস্তানে তীব্র জ্বালানি ও বিদ্যুৎ সংকট দারণ করছে

২৮ জুন থেকে প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ছুটি

আগামী প্রজন্মের সুরক্ষায় মাদকের বিরুদ্ধে সামাজিক আন্দোলন গড়ে তুলতে হবে

বেলারুশ ভূখণ্ড থেকে ইউক্রেনে ব্যাপক বোমাবর্ষণ: সেনাবাহিনী

পদ্মা সেতু উদ্বোধনের পর হাজারো জনতা হেঁটে বেড়িয়েছে

আগামীকাল থেকে রাজধানীর ৫ স্থানে দেওয়া হবে কলেরা টিকা

পদ্মা সেতু উপ অঞ্চলিক সংযোগ বাড়াবে: দোরাইস্বামী