আনুষ্ঠানিকভাবে কালোটাকা সাদা করার সুযোগ প্রথম দেয় জিয়ার সামরিক সরকার!

  বাংলাদেশের কথা ডেস্ক
  প্রকাশিতঃ দুপুর ০১:৫৯, শনিবার, ৮ জুন, ২০২৪, ২৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১

প্রস্তাবিত ২০২৪-২৫ অর্থবছরের বাজেটের  সমালোচনা করে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, এই বাজেট কালোটাকার। কালোটাকা কী করে সাদা করা যায় তার বাজেট। এছাড়া দলটির শীর্ষ নেতা রুহুল কবীর রিজভী, জমিরউদ্দিন সরকারসহ আরো অনেকে সরকারের কালো টাকা সাদা করার সুযোগ নিয়ে কঠোর সমালোচনা করেছেন। তবে ইতিহাস বলছে, সর্বপ্রথম বাংলাদেশে আনুষ্ঠানিকভাবে কালোটাকা সাদা করার সুযোগ চালু করেছিলেন বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমানের সামরিক সরকার, যা পরবর্তীতে রাষ্ট্রে প্রতিষ্ঠিত হয়ে যায়।

তথ্যমতে, বঙ্গবন্ধু হত্যাকেন্ডের পর  সামরিক আইনের অধীনে দেশে কালোটাকা সাদা করার সুযোগ সৃষ্টি হয়। ওই সময় মোশতাক সরকার ক্ষমতায় বসেই কালোটাকা সাদা করার সুযোগ দেওয়ার আলোচনা শুরু করেছিল। তবে মোশতাক সরকারের আয়ু ছিল মাত্র ৮১ দিন। পরবর্তীতে রাষ্ট্র ক্ষমতা গ্রহণ করে জিয়াউর রহমানই প্রথম আনুষ্ঠানিকভাবে কালোটাকা সাদা করার সুযোগ দিয়েছিলেন।

তবে যুদ্ধপরবর্তি বিধ্বস্ত অর্থনীতি পুনরুদ্ধারকল্পে ১৯৭৫ সালের প্রথম সংশোধিত শিল্পনীতিতে  সীমিত সময় ও পরিসরে শর্ত স্বাপেক্ষে  ‘অব্যবহৃত ও নিষ্ক্রিয় তহবিল উৎপাদনশীল খাতে বিনিয়োগ করলে কোনো প্রশ্ন করা হবে না’ বলে যে ঘোষণা দেয়া হয়েছিল, সেটিকে অনেকে 'কালো টাকা সাদা করার সুযোগ' বলে চালিয়ে দেবার  চেষ্টা করেন। কিন্তু অর্থনৈতিক বিশ্লেষকরা এর সাথে 'কালো টাকা সাদা' করার বিষয়টিকে মোটেই একভাবে দেখেন না।

কালোটাকা সাদা করার সবচেয়ে বড় ঘোষণাটিই দেওয়া ছিল জিয়ার সামরিক আইনের অধীনে। ওই আইনের ৬ নং আদেশে ‘কর-অনারোপিত আয়ের’ ঘোষণার জন্য ১৯৭৬ সালের ৩০ জুন পর্যন্ত সময় বেঁধে দেওয়া হয়েছিল, যদিও সেসময় ২৫ শতাংশ কর দিয়ে অর্থ সাদা করার প্রস্তাব দেওয়া হয়।

এ নিয়ে ১৯৭৭-৭৮ অর্থবছরের বাজেট বক্তৃতায় তৎকালীন রাষ্ট্রপতি মেজর জিয়াউর রহমান বলেছিলেন, ‘আপনারা অবগত আছেন যে করদাতারা তাঁদের কর-অনারোপিত প্রকৃত আয়ের ঘোষণার জন্য ১৯৭৬ সালের ৩০ জুন পর্যন্ত সুযোগ পেয়েছিলেন। কিন্তু অনেকে এ সুযোগ গ্রহণ করতে না পারায় আগামী ৩০ জুন পর্যন্ত মেয়াদ বাড়ানো হয়েছে। এতে কোনো রেয়াতি হারের সুযোগ নেই, কিন্তু দণ্ড থেকে অব্যাহতি আছে। করদাতারা এই শেষ সুযোগ হারালে কর ফাঁকির কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।’

অর্থনীতিবিদরা বলছেন, ‘তৎকালীন রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমান হুমকি দিয়েছিলেন ঠিকই, কিন্তু যাঁরা সুযোগ নেননি, তাঁদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থাও তিনি নেননি। মূলতঃ সরকারিভাবে কালোটাকা সাদা করার সুযোগ দেওয়া সেই শুরু। এরপর থেকে দেশের সব সরকার নিয়মিতভাবে কালোটাকা সাদা করার সুযোগ দিয়ে আসছে।

Share This Article

এ যুগের রাজাকারদের পরিণতি ওই যুগের রাজাকারদের মতই হবে : শিক্ষামন্ত্রী

যাঁরা ‘আমি রাজাকার’ বলেন, তাঁদের শেষ দেখে ছাড়বে ছাত্রলীগ

কোটা আন্দোলনকারীদের হটাতে অ্যাকশনে পুলিশ

পারলে সশরীরের ঢাকায় যেতাম, আন্দোলন নিয়ে কবীর সুমন

আর্জেন্টিনার ইতিহাস গড়া জয়, কোপার শিরোপা মেসিদের

ঢাবি হলের কক্ষে কক্ষে কোটাব্যবস্থা নিয়ে প্রচারপত্র দিলেন ছাত্রলীগের শীর্ষ নেতারা

শিক্ষার্থীরা বঙ্গবন্ধুকন্যাকে কটূক্তি করেনি, কেউ শিখিয়ে দিয়েছে

জামিন পেলেন সেই সেই মিল্টন সমাদ্দার

প্রাণহানির প্রতিটি ঘটনার বিচার বিভাগীয় তদন্ত হবে : প্রধানমন্ত্রী

ছাত্রলীগের উপর বিনা উসকানিতে হামলা চালানো হয়েছে : ওবায়দুল কাদের


চীনের কাছে ৫০০ কোটি ডলার ঋণ চায় বাংলাদেশ

সিলেট ও রশিদপুরে কূপ খননে কাজ পেলো চীনা প্রতিষ্ঠান

রাজস্ব আদায়ের নতুন মাইলফলক ঢাকা দক্ষিণ সিটির

প্রথমবারের মতো লজিস্টিকস নীতি প্রণয়ন, গুরুত্ব পেয়েছে নৌ খাত

আদানির বিদ্যুৎকেন্দ্রের ১ ইউনিট চালু, সরবরাহ হচ্ছে ৭০২ মেগাওয়াট

নতুন বাজারে বেড়েছে তৈরি পোশাক রপ্তানি

কমেছে সোনার দাম

ব্যাংক হলিডে সোমবার, বন্ধ থাকবে পুঁজিবাজারও

বড় ঋণের অনুমোদন দিল বিশ্বব্যাংক, বাংলাদেশের জন্য ‘গেম চেঞ্জার’

বাংলাদেশের জন্য ৭ হাজার ৬৩৮ কোটি টাকা ঋণ অনুমোদন বিশ্বব্যাংকের

রিজার্ভে যোগ হলো আরো দুই বিলিয়ন ডলার

ভারতের কেন্দ্রীয় ব্যাংক রিজার্ভ ব্যাংক অব ইন্ডিয়া (আরবিআই)

সার্কভুক্ত দেশকে নিজস্ব মুদ্রা বিনিময়ের সুবিধা দেবে ভারত