লঞ্চ থেকে লাফিয়ে প্রাণে বাঁচলেন ইউএনও

  বাংলাদেশের কথা ডেস্ক
  প্রকাশিতঃ দুপুর ০২:৩৩, শুক্রবার, ২৪ ডিসেম্বর, ২০২১, ৯ পৌষ ১৪২৮
বরগুনার পাথরঘাটা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) হোসাইন মোহাম্মদ আল মুজাহিদ
বরগুনার পাথরঘাটা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) হোসাইন মোহাম্মদ আল মুজাহিদ

বরগুনা প্রতিনিধি:
ঝালকাঠির সুগন্ধা নদীতে এমভি অভিযান-১০ লঞ্চে ভয়াবহ আগুনের ঘটনায় প্রাণে রক্ষা পেয়েছেন বরগুনার পাথরঘাটা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) হোসাইন মোহাম্মদ আল মুজাহিদ। বৃহস্পতিবার দিনগত রাত ৩টার দিকে লঞ্চটিতে আগুন লাগে। এ সময় যাত্রীদের চিকিৎকারে ঘুম ভাঙে ইউএনও মুজাহিদের। পরে লঞ্চের তৃতীয় তলা থেকে লাফিয়ে দোতলায় নামেন। তবে তার স্ত্রীর পা ভেঙে গেছে।

পাথরঘাটার এই ইউএনও ওই লঞ্চের ভিআইপি কেবিনের নীলগিরির যাত্রী ছিলেন। লঞ্চ থেকে উদ্ধার হওয়ার পর তাদের ঝালকাঠি সদর হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হয়।

শুক্রবার সকালে বরগুনার নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মেহেদী হাসান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান, ঢাকা থেকে অফিসের কাজ সেরে বৃহস্পতিবার বরগুনায় আসছিলেন ইউএনও মুজাহিদ। রাত ৩টার দিকে লঞ্চে অন্য যাত্রীদের চিৎকারে তার ঘুম ভাঙে। এ সময় অনেকে নদীতে লাফিয়ে বাঁচার চেষ্টা করেন। তৃতীয় তলা থেকে স্ত্রীসহ তিনি লাফ দিয়ে দোতলায় পড়ে যান। তবে তার স্ত্রীর পা ভেঙে গেছে।

উল্লেখ্য, বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা ৬টার দিকে প্রায় চারশ যাত্রী নিয়ে লঞ্চটি সদরঘাট থেকে ছেড়ে যায়। চাঁদপুর ও বরিশাল টার্মিনাল লঞ্চটি থামে এবং যাত্রী উঠা-নামা করে।

ঝালকাঠির সুগন্ধা নদীতে পৌঁছলে রাত ৩টার দিকে এতে আগুন ধরে যায়। এ ঘটনায় এখন পর্যন্ত ৩৭ জনের মৃত্যু হয়েছে। আহত অবস্থায় ৭২ জনকে বরিশালের শেরেবাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। 

বিষয়ঃ বাংলাদেশ

Share This Article