গৃহবধূকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের পর হত্যা, ১০ জনের যাবজ্জীবন

  বাংলাদেশের কথা ডেস্ক
  প্রকাশিতঃ বিকাল ০৪:১৯, মঙ্গলবার, ২৭ সেপ্টেম্বর, ২০২২, ১২ আশ্বিন ১৪২৯

 

ঝিনাইদহ প্রতিনিধি 

ঝিনাইদহে এক গৃহবধূকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের পর হত্যার ঘটনায় ১০ আসামির যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। একইসঙ্গে প্রত্যেককে এক লাখ টাকা করে জরিমানাও করা হয়েছে।

মঙ্গলবার দুপুর ১২টার দিকে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক মিজানুর রহমান এ রায় ঘোষণা করেন।


 

দণ্ডিতরা হচ্ছেন- জেলা সদরের বিষয়খালী এলাকার রসুল, শরিফুল ইসলাম, আমিরুল ইসলাম, গোলাম রসুল, আব্দুল আজিজ, আজিজুর রহমান, জাহিদুল ইসলাম, বাদশা মিয়া ও বাতেন। এদের মধ্যে শরিফুল ও আমিরুল ইসলামসহ তিন জন পলাতক রয়েছেন।  বাকিরা রায় ঘোষণার সময় আদালতে ছিলেন।

রায়ের কপি থেকে জানা যায়, ২০১১ সালের ১১ মার্চ মাসে ঝিনাইদহ সদর উপজেলার বিষয়খালী গ্রামের আরব আলীর স্ত্রী রেনু বেগমকে তুলে নিয়ে পার্শ্ববর্তী বাঁশবাগানে নিয়ে পালাক্রমে রাতভর ধর্ষণ করেন কয়েকজন। পরে তারা ওই নারীকে হত্যা করে পালিয়ে যায়।

এ হত্যার ঘটনায় নিহতের স্বামী আরব আলী বাদী পরদিন ১৬ জনকে আসামি করে থানায় মামলা করেন। সেই মামলার দীর্ঘ শুনানি শেষে আদালত আজ রায় দেন।

মামলার বাদী ও নিহতের স্বামী আরব আলী বলেন, ২০১১ সালে আমার স্ত্রীকে ওরা ধর্ষণের পর হত্যা করেছে। আসামিদের যাবজ্জীবন কারাদণ্ড হয়েছে। দীর্ঘদিন পর স্ত্রী হত্যার বিচার পেয়ে খুশি।

Share This Article


পদে থাকতে বাধা নেই পররাষ্ট্রমন্ত্রীর, হাইকোর্টে রিট খারিজ

সারাদেশের আদালতে নিরাপত্তা বাড়ানোর নির্দেশ সুপ্রিম কোর্টের

বুয়েট শিক্ষার্থী সানি হত্যা মামলার প্রতিবেদন ১৫ ডিসেম্বর

ইউপি নির্বাচনেও প্রার্থীদের হলফনামা দিতে হবে: হাইকোর্ট

জি এম কাদেরের ওপর নিষেধাজ্ঞা বহাল, আবেদন খারিজ

বুয়েট শিক্ষার্থী ফারদিনের বান্ধবী কারাগারে

দুদকের মামলায় চীনা নাগরিকসহ ৬ জনের কারাদণ্ড

রিজার্ভ চুরির মামলার প্রতিবেদন ১ জানুয়ারি

আদালতে সাক্ষ্য দিয়েছেন সজীব ওয়াজেদ জয়

আদালতে সাক্ষ্য দিলেন প্রধানমন্ত্রীপুত্র জয়

রিমান্ড শেষে কারাগারে বাবুল আক্তার

বাড়ির মালিককে হত্যার দায়ে ভাড়াটিয়ার যাবজ্জীবন